জানুন ০৫ ই সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস কেন পালিত হয় ( Sikhak Diwas keno palito hoy bangla)





কথায় আছে বিধাতার সৃষ্টি করা সব দিনই সমান। তবুও তারই সৃষ্টি এমন কিছু মানুষ আছে যারা তাদের নিজ কর্ম ও গুনে সৃষ্টিকর্তার সৃষ্টি করা দিন গুলোর এক একটি দিনকে বিশেষ মহিমা দান করে চলে গেছেন।

০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস কেন পালন করা হয় হয় ? শিক্ষক দিবসকে কার জন্মদিন হিসাবে পালন করা হয় ? তাহলে বলতে হয় ০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস পালনের পিছনে তাৎপর্য আছে।

ঈশ্বরের সৃষ্টি মানবকুলে জন্ম নিয়ে একজন মহান শিক্ষক তার ব্যক্তিসত্ত্বা দিয়ে ০৫ ই সেপ্টেম্বর দিনটিকে তার কর্ম ও গুনে শিক্ষক ও ছাত্রমহলে বিশেষ মহিমা প্রদান করেছে।

আজকে আমরা ভারতবর্ষের প্রাক্তন উপরাষ্ট্রপতি ও রাষ্ট্রপতি এবং মহান শিক্ষক সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণানের জন্ম দিবসে ০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস কেন পালন করা হয় সেই বিষয়ে,

মহান শিক্ষক সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণানের চিন্তা ধারার অভিব্যক্তি আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করব। আশা করি শিক্ষক দিবস উদযাপন নিয়ে শিক্ষক দিবস সম্পর্কে প্রতিবেদন রচনাটি আপনাদের ভালো লাগবে।

শিক্ষক দিবস সর্বপ্রথম কবে চালু হয়েছিল (Teachers Day)


সভ্যতা ও সংস্কৃতির দেশ হল আমাদের ভারতবর্ষ,একসময় ভারতকে বিশ্ববাসী বিশ্বগুরু বলে সম্বোধন করত। হিন্দু ও বৌদ্ধ শাস্ত্রে গুরু পূর্ণিমার দিনে গুরু অথাৎ শিক্ষককে পূজন করা হয়।

গুরু শব্দটি ‘গু’ এবং ‘রু’,এই দুটি সংস্কৃত শব্দের সমন্বয়ে গঠিত। সংস্কৃতে ‘গু’ মানে ‘অন্ধকার’ বা অজ্ঞতা এবং ‘রু’ শব্দের অর্থ হল ‘অন্ধকারকে দূরীভূত করা‘।

তাই গুরু বলতে নির্দিষ্টভাবে কোনো ব্যক্তিকে ইঙ্গিত করা হয়নি। তাই সহজভাবে বলতে গেলে যিনি আমাদের মনের অজ্ঞতা দূরকরে জ্ঞানের প্রদীপ জ্বালিয়ে দেন তিনিই হলেন গুরু।

শিক্ষক দিবস সর্বপ্রথম কবে চালু হয়েছিল এই প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে বলতে হয়,সর্বোপরি ভাবে ইউনিস্কো (United Nations Educational Scientific and Cultural Organization)

০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস কেন পালন করা হয়
০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস কেন পালন করা হয়

দ্বারা ১৯৯৫ সাল থেকে ০৫ অক্টবর দিনটিকে শিক্ষকদের অবদান ও স্বীকৃতিকে চিরস্মরণীয় করে রাখার জন্য বিশ্ব শিক্ষক দিবস রুপে পালন করা হয়। সবমিলিয়ে বিশ্বের ১০০ টি দেশে

০৫ অক্টবর দিনটিকে বিশ্ব শিক্ষক দিবস রুপে পালন করা হয়। ০৫ অক্টবর দিনটিকে Education International ও তার সহযোগী ৪০১ সদস্যের সংগঠন দ্বারা পরিচালিত করা হয়।

Education International এর উদ্যোগে ০৫ অক্টবর বিশেষ দিনটিতে শিক্ষকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত শিক্ষকদের অবদানকে স্মরণ করিয়ে বিভিন্ন জনসচেতনতা মুলক প্রচার ও অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অবশ্যই পড়ুন : দলাই লামার জীবনী। 

০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস কেন পালন করা হয় শিক্ষক দিবস সম্পর্কে প্রতিবেদন রচনা 


যদিও ইউনিস্কো দ্বারা স্বীকৃর্ত ০৫ অক্টবর দিনটি Education International এর উদ্যোগে বিশ্ব শিক্ষক দিবস হিসাবে গুরু ও শিক্ষকদের শ্রদ্ধা জ্ঞাপনের উদ্দেশ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে

বিশ্ব শিক্ষক দিবস (world Teachers Day) রুপে পালন করা হয়। তবে ভারতের শিক্ষক সমাজে ০৫সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস হিসাবে পালনের পিছনে শিক্ষক দিবসের আলাদা তাৎপর্য আছে।

ভারতের স্বর্গীয় প্রাক্তন উপরাষ্ট্রপতি (১৯৫২-১৯৬২) এবং রাষ্ট্রপতি (১৯৬২-১৯৬৭) মহান শিক্ষক ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণানের জন্মদিনকে স্মরণ করে

ভারতবর্ষের সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র ও শিক্ষক মন্ডলী ০৫ সেপ্টেম্বর দিনটিকে,মর্যাদার সাথে শিক্ষক দিবস হিসাবে পালন করে।

ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণান ছাত্র সমাজের কাছে একজন যোগ্য এবং আদর্শ শিক্ষক ছিলেন। যাইহোক যার জন্য ভারত বর্ষের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলোতে

ছাত্র ও শিক্ষকরা প্রতিবছর ০৫ সেপ্টেম্বর দিনটিকে শিক্ষক দিবস হিসাবে পালন করেন সেই মহান শিক্ষক ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণনানের জীবনী নিয়ে কিঞ্চিত আলোচনা করা যাক।

অবশ্যই পড়ুন : অজিত ডোভালের জীবনী। 

ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণের জীবনী নিয়ে মৌখিক দু-চার কথা  

১৮৮৮ সালের ০৫ সেপ্টেম্বর তখনকার মাদ্রাজ প্রদেশের চিতোর জেলার (বর্তমান তামিলনাড়ুর, তিরুভুল্লর জেলা) তিরুতান্নিতে,এক সাউথ ইন্ডিয়ান গরিব ব্রাহ্মণ পরিবারে ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণের জন্ম হয়।

রাধাকৃষ্ণানের বাবার ইচ্ছে ছিল ছেলে বড় হয়ে মন্দিরের পূজারী হোক। রাধাকৃষ্ণানের বাবা সর্বপল্লী বিরাস্বামী কোনোদিন চাননি ছেলে ইংরেজি শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে ইংরেজি শিখুক।

কিন্তু রাধাকৃষ্ণানের পড়াশোনার অদম্য ইচ্ছায় এবং মাতা সর্বপল্লী সীতাদেবীর প্রভাবে তার বাবা মতপরিবর্তন করে রাধাকৃষ্ণনকে বাধ্য হয়ে তিরুপতির একটি ইংরেজি স্কুলে ভর্তি করে দেন।

রাধাকৃষ্ণন ছাত্র হিসাবে অত্যন্ত মেধাবী ছাত্র ছিলেন। জীবনের কোনো পরীক্ষায় তিনি প্রথম ছাড়া কোনোদিন দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেননি।

তার পড়াশোনার যাবতীয় ব্যায়ভার নির্বাহীত হত সরকার থেকে পাওয়া তার ছাত্র বৃত্তির টাকা থেকেই। মাত্র ১৬ বছর বয়সে রাধাকৃষ্ণনের বাবা,মা শিবকামু দেবীর সঙ্গে বিবাহ দিয়ে দেন।

রাধাকৃষ্ণান উচ্চ মাধ্যমিক পাস করার পর ভেলোরের ভুরুহী কলেজে ভর্তি হন। কলেজে আডমিশন নেওয়ার পর বই কেনার টাকা না থাকায়

তাকে বাধ্য হয়ে ভেলোরের ভুরুহী কলেজ ত্যাগ করতে হয়। পরে তিনি তার দুঃসম্পর্কের আত্মীয় দাদার সহযোগিতায় বাধ্য হয়ে মাদ্রাজের ক্রিশ্চান কলেজে ভর্তি হন।

সেই বছরই তার দাদা ক্রিশ্চান কলেজ থেকে দর্শন বিষয়ে স্নাতক পাস করেছিলেন। আর তার দাদার থেকে পাওয়া বই গুলো নিয়েই অনিচ্ছা সত্ত্বেও তাকে দর্শন বিষয় নিয়ে স্নাতক স্তরে ভর্তি হতে হয় ।

১৯০৬ সালে তিনি মাত্র ১৭ বছর বয়সে মাদ্রাজ ক্রিশ্চান কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন এবং তিনি সেখান থেকেই মাস্টার ডিগ্রি পাস করেন।

২০ বছর বয়সে তার বেদান্ত দর্শন নিয়ে গবেষণা সমূহ লেখা প্রকাশিত হয়। এরপর তিনি মাদ্রাজের প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে তার অধ্যাপনা জীবন শুরু করেন।

বিদেশের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতা ছাড়াও ভারতের কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়,মহীশুর বিশ্ববিদ্যালয়ের মত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলি তার অধ্যাপনার ছোঁয়া পায়।

১৯১৮ সালে মহীশুর বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করার সময় তাঁর লেখা প্রথম গ্রন্থ ‘দ্য ফিলোজফি অফ রবীন্দ্রনাথ টেগোর’ প্রকাশিত হয়।

১৯২০ সালে তার দ্বিতীয় গ্রন্থ ‘দ্য রেন অফ রিলিজিয়ন ইন কনটেমপোরারি ফিলোজফি’ প্রকাশিত হয়।১৯৩১ সালে রাধাকৃষ্ণানের শিক্ষাক্ষেত্রে শিক্ষকতায় মুগ্ধ হয়ে,

তাকে ব্রিটিশ সরকার দ্বারা নাইট হুড উপাধি দিয়ে সম্মানিত করা হয়। লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এইচ.এন.স্পেলডিঙ্গ রাধাকৃষ্ণানের দর্শন শাস্ত্রের অবিশ্বাসনীয় লেকচার শুনে

লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ে তার জন্য একটি চেয়ার স্থাপনের সিন্ধান নেন। ১৯৪৬ সালে রাধাকৃষ্ণনকে ইউনিস্কোয় এবং ১৯৪৯ সালে সোভিয়েত ইউনিয়নের ভারতীয় দূত হিসাবে হিসাবে নির্বাচিত করা হয়।

১৯৫২ সালে তিনি প্রথমবার ভারতের উপরাষ্ট্রপতি হন এবং ১৯৫৪ সালে ভারত সরকার তাকে ভারতরত্ন পুরুস্কার দিয়ে ভারতের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মানে সম্মানিত করেন।

০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস কেন পালন করা হয়
০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস কেন পালন করা হয়

১৯৫২-১৯৬২ সাল পর্যন্ত একটানা ১০ বছর রাষ্ট্রপতি পদে আসীন থাকার পর,১৯৬২ সালে তিনি ভারতের রাষ্ট্রপতি হিসাবে নির্বাচিত হন।

অবশ্যই পড়ুন : গণিতবিদ শ্রীনিবাস রামানুজনের জীবনী। 

০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবসের তাৎপর্য (05 Septembor Teachers Day)

১৯৬২ সালে সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণান বাবু রাষ্ট্রপতি হওয়ায় তার সহযোগী বিভিন্ন অধ্যপক ও ছাত্ররা তাদের বিশিষ্ট শিক্ষক দেশের সর্বোচ্চপদ রাষ্ট্রপতি পদে আসীন হওয়ার আনন্দে,

রাধাকৃষ্ণানের জন্মদিনটিকে আনুষ্ঠানিকভাবে উদযাপন করার জন্য রাধাকৃষ্ণনান বাবুর কাছে প্রস্তাব রাখেন। রাধাকৃষ্ণনান বাবু তখন তার ছাত্র ও অনুগামীদের উদ্দেশ্য করে বলেন-

যদি সত্যি সত্যিই তোমরা আমাকে শিক্ষক হিসাবে শ্রদ্ধা করে,বিশেষভাবে আমার জন্মদিন পালন করে আমায় আনন্দ দিতে চাও তাহলে,

০৫ সেপ্টেম্বর দিনটিকে আলাদা করে আমার জন্মদিন হিসাবে পালন না করে সমস্ত শিক্ষক সমাজকে সম্মান জানিয়ে শিক্ষক দিবস হিসাবে উদযাপন কর তাহলে আমি বেশি খুশি হব।

এরপর ১৯৬২ সালের পর থেকে ০৫ সেপ্টেম্বর দিনটি ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণান বাবুর উপর শ্রদ্ধা রেখে ভারতের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক মহলে ০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস হিসাবে পালিত হয়ে আসছে।

আপনারা শুনে হয়তো আনন্দ পাবেন ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণান বাবু ছাত্রদের কাছে এতটাই প্রিয় ছিলেন যে,তিনি যখন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিদায় নিয়ে মহীশুর বিশ্ববিদ্যালয়ে

স্থানান্তর হচ্ছিলেন তখন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের তার গুণমুগ্ধ ছাত্র ও ছাত্রীরা তাকে ফুলমালা সাজানো গাড়ি করে হাওড়া স্টেশন পর্যন্ত ছাড়তে এসেছিলেন।

০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবসের গান (Teachers Day song)


০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবসের দিনে শিক্ষক দিবসের একটি গান উৎসর্গ করা হল আপনারা শিক্ষক দিবসের গানটি শুনে দেখতে পারেন। আশাকরি আপনারা শিক্ষক দিবসের গানটি শুনে অবিভুত হবেন।

শিক্ষক দিবস নিয়ে কবিতা (Teacher Day Kobita)


শিক্ষক দিবস নিয়ে কবিতা আবৃতি,কবিতার নাম “শিক্ষক” কলমে সায়র ব্যানার্জী,কণ্ঠে সানন্দা পাল,আবহ সঙ্গীত ইন্দ্রনীল চ্যাটার্জী।

বিভিন্ন দেশে শিক্ষক দিবসের তারিখ


বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শিক্ষক দিবস উদযাপনের দিন গুলি আপনদারে জন্যে শেয়ার করা হল,আসুন একনজরে বিভিন্ন দেশে শিক্ষক দিবস কত তারিখ উদযাপন করা হয় দেখে নেওয়া যাক।

দেশ  দিন 
ভারত ০৫ সেপ্টেম্বর
বাংলাদেশ ০৫ অক্টবর
পাকিস্তান ০৫ অক্টবর
চীন ১০ সেপ্টেম্বর
ভুটান ০২ মে

 

FAQ


প্রশ্ন- শিক্ষক দিবস কত তারিখ ?

উঃ- শিক্ষক দিবস ০৫ সেপ্টেম্বর।

প্রশ্ন- শিক্ষক দিবস কার জন্মদিন ?

উঃ- শিক্ষক দিবস ০৫ সেপ্টেম্বর ডঃ সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণানের জন্মদিন।

প্রশ্ন- বিশ্ব শিক্ষক দিবস কত তারিখে উদযাপন করা হয় ?

উঃ- ০৫ অক্টবর বিশ্ব শিক্ষক দিবস উদযাপন করা হয়।

প্রশ্ন- শিক্ষক দিবস কবে পালিত হয় ?

উঃ- শিক্ষক দিবস ০৫ সেপ্টেম্বর পালিত হয়।

পরিশিষ্ট


এতক্ষন আমরা ০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস কেন পালন করা হয় তার সংক্ষিত সারমর্ম স্বরুপ অন্তনিহিত তাৎপর্য আপনাদের সামনে বিবৃত করা হল। তারই সাথে শিক্ষক দিবস কার জন্মদিন,

শিক্ষক সর্বপ্রথম কবে চালু করা হয়েছিল,শিক্ষক দিবসের তাৎপর্য কি ? এইসব প্রশ্নের যথাসম্ভব উপলব্ধ সংক্ষিপ্ত উত্তর পর্ব শিক্ষক দিবস সম্পর্কে প্রতিবেদন রচনার মাধ্যেম তুলে ধরা হল।

পরিশেষে এটাই বলব ০৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস কেন পালিত হয় ? ব্যাপারটা সমন্ধে একটা মৌখিক ধারণা যদি আপনাদের সম্মুখে তুলে ধরতে পেরে থাকি,তাহলে নিজেকে ধন্য মনে করব। ধন্যবাদ।

এই আর্টিকেল গুলোও পড়ে দেখুন –