রেশন কার্ড ৪ নং ফর্ম ডাউনলোড এবং বাচ্চাদের নতুন রেশন ৪ নং ফর্ম ফিলাপ কার্ড ৪ নং ফর্ম ফিলাপ (Ration Card 4 no form download west bengal)

এখন আমরা রেশন কার্ড ফর্ম ৪ ডাউনলোড এবং রেশন কার্ড ৪ নং ফর্ম ডাউনলোড ফিলাপ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। কিন্তু তার আগে জানতে হবে রেশন কার্ড ফর্ম ৪ নং দিয়ে

কারা কারা নতুন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবে। দেখুন যে সমস্ত পরিবারের কর্তার অথাৎ অভিভাবক ও তার পরিবারের দু-একজন সদস্যের রেশন কার্ড আছে,

কিন্তু পরিবারের এমন কোনো কোনো সদস্য আছে যাদের রেশন কার্ড এখনো হয়ে উঠেনি অথবা কোনো কারণে বাদ পরে গেছে তারা রেশন কার্ড ফর্ম ৪ ডাউনলোড করে নতুন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

আবার যে সমস্ত পরিবারের নতুন গৃহবধূ বিয়ে হয়ে এসেছে কিন্তু গৃহবধূর তার বাপের বাড়িতে কোনো রেশন কার্ড ছিলনা বা রেশন কার্ড হয়নি,সেই গৃহবধূ তার শশুর বাড়ির ঠিকানায় রেশন কার্ড ৪ নং ফর্ম ফিলাপ করে

নতুন রেশন কার্ডের জন্য আবদেন করতে পারেন। আবার পরিবারে নতুন কোনো বাচ্চার জন্ম হলে,সেই বাচ্চাদের রেশন কার্ড বানানোর জন্য,রেশন কার্ড ফর্ম ৪ নং ফর্ম ফিলাপ করে নতুন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন।

রেশন কার্ড ফর্ম ৪ ডাউনলোড (Ration Card 4 No form download west bengal pdf)

রেশন কার্ড ফর্ম ৪ পিডিএফ ডাউনলোড করে ফর্ম ফিলাপের মধ্যে দিয়ে আপনার পরিবারের যে সমস্ত সদস্যের রেশন কার্ড নেই তাদের এছাড়া বাড়ির নতুন গৃহবধূ যার আগের কোনো রেশন কার্ড নেই

এবং পরিবারে নতুন কোনো বাচ্চা শিশুর রেশন কার্ড না থাকলে বাচ্চাদের রেশন কার্ড বানানোর জন্য নতুন রেশন কার্ড ৪ নং ফর্ম ফিলাপ করে বাচ্চাদের রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন।

এখানে কিন্তু রেশন কার্ড ফর্ম ৩ এর মত পৌরসভা এবং পঞ্চায়েত এলাকার মানুষের জন্য আলাদা আলাদা ফর্ম তুলতে হয়না। রেশন কার্ড ৪ নং ফর্ম কিন্তু পৌরসভা ও পঞ্চায়েত এলাকার মানুষের জন্য একই রকম।

তাই রেশন কার্ড ফর্ম ৪ ডাউনলোড নিয়ে কোনো সংশয় আমাদের মধ্যে না থাকায় উচিত। গ্রামীণ এবং শহরের মানুষ রেশন কার্ড ফর্ম ৪ দিয়ে পরিবারের এমন সদস্য যাদের রেশন কার্ড হয়নি

তাদের নতুন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন। আমরা নিচে রেশন কার্ড ফর্ম ৪ পিডিএফ ডাউনলোড লিংক দিয়ে দিলাম,আপনারা আমাদের এই লিংকে ক্লিক করে রেশন কার্ড ফর্ম ৪ ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

রেশন-কার্ড-ফর্ম-৪-ডাউনলোড
রেশন-কার্ড-ফর্ম-৪-ডাউনলোড

বাচ্চাদের নতুন রেশন কার্ড ৪ নং ফর্ম ফিলাপ

সবার প্রথমে আপনারা আমাদের উপরের দেওয়া লিংকে ক্লিক করে রেশন কার্ড ফর্ম ৪ ডাউনলোড করে নিন। আমরা এখন বাচ্চাদের নতুন রেশন কার্ড ৪ নং ফর্ম ফিলাপ

অথাৎ রেশন কার্ড ৪ নং ফর্ম ফিলাপ কিভাবে করতে হবে ধাপে ধাপে আলোচনা করব। আপনাদের পরিবারের কোনো সদস্যের রেশন কার্ড না থাকলে

আমাদের রেশন কার্ড ৪ নং ফর্ম ফিলাপ করার নিয়মগুলো ভালোকরে পড়ে নিজে নিজেই রেশন কার্ড ৪ নং ফর্ম ফিলাপ করতে পারেন।

Section A: Details of Head of Family (HoF)/ Any member having DRC

রেশন কার্ড ফর্ম ৪ এর প্রথম কলমে : Name* এর জায়গায় পরিবারের পুরুষ অথবা মহিলা অভিভাবক হিসাবে যার রেশন কার্ড আছে এমন একজন অভিভাবকের নামের এক একটি অক্ষর ইংরেজিতে বড় হরফে

এক একটি বাক্সের মধ্যে লিখতে হবে। দ্বিতীয় কলমে: Ration Card Type* এর কলমে পরিবারের অভিভাবক যিনি পরিবারের অন্য সদস্যদের জন্য নতুন রেশন কার্ড আবেদন করছেন

তার যে ধরণের (AAY/PHH/SPHH/RKSY-1/RKSY-II/GEN) রেশন কার্ড আছে,সেই ক্যাটেগরীর আগের খালি বাক্সে টিক চিহ্ন (√) বসাতে হবে।

তৃতীয় কলমে : Ration Card Number* এর কলমে যিনি অভিভাবক হিসাবে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের জন্য রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করছেন তার Ration Card Number* বসাতে হবে।

Section B: Details of new members applying for DRC (Aadhaar not mandatory for applicants below age of 5 yrs.) Details of the 1st,2nd,3rd Applicant

Section B এর কলমটি হল যাদের জন্য রেশন কার্ড আবেদন করছেন তাদের ডিটেলস পূরণ করার ফর্ম। এখানে একই ভাবে 1st,2nd.3rd Applicant ধরে ,

সর্বমোট তিন জনের জন্য রেশন কার্ডের আবেদন করে আবেদনকারীর ডিটেলস পূরণ করতে পারবেন। একটি ৪ নং রেশন কার্ডের ফর্ম দিয়ে সর্বাধিক পরিবারের তিন জন সদস্যের নতুন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করা যাবে।

আপনি যদি আপনার পরিবারের তিন জনের অধিক সদস্যের জন্য রেশন কার্ডের আবেদন করতে চান তাহলে আপনাকে দুটো আলাদা আলাদা রেশন কার্ড ফর্ম ৪ ডাউনলোড করে নতুন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে হবে।

আসুন তাহলে ধাপে ধাপে একে Applicant অথাৎ আবেদনকারীর নাম ডিটেলস কিভাবে পূরণ করতে হবে একবার দেখে নেওয়া যাক।

প্রথম ধাপ : Name of the Applicant* এর কলমে আপনাকে প্রথম আবেদনকারীর নামের এক একটি অক্ষর ইংরেজিতে বড় হরফে এক একটি বাক্সে লিখতে হবে।

যেমন- এখানে ROHAN KAR লেখার পর জন্যে প্রথমে এক একটি বাক্সে ROHAN নামের অক্ষর গুলি বসানোর পর একটি বাক্স খালি রেখে টাইটেল কার লিখতে হবে।

দ্বিতীয় ধাপ : Relationship with the Head of Family* এর কলমে আবেদনকারীর সঙ্গে আবেদনকারীর অভিভাবকের মধ্যে সম্পর্ক লিখতে হবে।

যেমন – অভিভাবকের সঙ্গে আবেদনকারীর বাবা ও ছেলের সম্পর্ক হয় তাহলে এই কলমে ইংরেজিতে বড় হরফে FATHER কথাটা লিখতে হবে।

তৃতীয় ধাপ : Father’s/Mother’s/Spouse’s Name* এই কলমটি খুব যত্নের সঙ্গে বুঝে সুঝে পূরণ করতে হবে। এখানে যার জন্য আবেদন করা হচ্ছে তার বাবার/মায়ের/স্বামীর নাম লিখতে হবে।

যেমন- কোনো বাচ্চার জন্য রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করা হলে এই কলমে বাচ্চার বাবার নাম লিখতে হবে। আবার যদি বাড়ির পুত্রবধূর নামে রেশন কার্ডের আবেদন করা হয় তাহলে সেই পুত্রবধূর নিজের স্বামীর নাম লিখতে হবে।

চতুর্থ ধাপ : Date of Birth* এই কলমটিতে আবেদনকারীর বয়স দিন/মাস/বছর এইভাবে লিখতে হবে। যেমন – 11/06/1991 এই ভাবে এক একটি বাক্সে এক একটি সংখ্যা লিখতে হবে।

এখানে Date of Birth* লেখার পর পাশের বাক্সে লিঙ্গ অথাৎ Male/Female/Others এর কলম দেওয়া আছে। এই কলমে আবেদনকারী যেই লিঙ্গের মানুষ তার আগে বাক্সে টিক চিহ্ন (√) বসাতে হবে।

পঞ্চম ধাপ : Aadhaar Number* এই কলমে আবেদনকারীর দশ অংকের আধার নম্বর পূরণ করতে হবে। তবে খেয়াল রাখবেন যে সমস্ত শিশুদের বয়স ০৫ বছরের নিচে তাদের আধার কার্ড নম্বর দেওয়ার দরকার নেই।

ষষ্ঠ ধাপ : EPIC Number এই কলমে আবেদনকারীর বয়স যদি ১৮ বছরের ঊর্ধে হয় তাহলে ভোটার আইডি কার্ড নম্বরটি লিখতে হবে।

সপ্তম ধাপ : Whether Person with Disability (PWD) এই কলমে আবেদনকারী যদি শারীরিকভাবে অক্ষম অথাৎ বিকলাঙ্গ হয় তাহলে আগের খালি বাক্সে (√) টিক চিহ্ন বসাতে হবে।

তবে আবেদনকারী যদি শারীরিকভাবে সুস্থ ও স্বাভাবিক একজন মানুষ হন তাহলে কিন্তু এখানকার কোনো বাক্সে টিক চিহ্ন দেওয়্যার দরকার নেই বাক্স গুলোতে  ড্যাস চিহ্ন (–) বসিয়ে দিন।

নোট : আমরা এখানে শুধুমাত্র একজন আবেদনকারীর নাম ডিটেলস কিভাবে পূরণ করতে হবে আলোচনা করে দেখলাম,বাকি 2nd,3rd Applicant এর জায়গা গুলো আপনারা একই নিয়মে দেখে দেখে ফিলাপ করে নেবেন।

Section B: Address details

প্রথম ধাপ : এখানে প্রথম কলমে District (জেলা) এর জায়গায় আপনি ইংরেজি বড় অক্ষরে আপনার জেলার নাম লিখুন। ফরম ফিলাপ করার সময় ইংরেজি

বড় অক্ষরে ফরম ফিলাপ করবেন এবং খেয়াল করে এক একটি বাক্সে এক একটি অক্ষর বসাবেন। যেমন – আমার District হল বীরভূম তাহলে আমাকে ইংরেজিতে BIRBHUM এইভাবে বড় হরফে লিখতে হবে।

দ্বিতীয় ধাপ : Sub-division* এর জায়গায় ইংরেজি বড় অক্ষরে আপনি আপনার মহকুমার নাম লিখুন। যেমন- আমার মহকুমা হল রামপুরহাট তাহলে আমাকে ইংরেজি বড় অক্ষরে RAMPURHAT লিখতে হবে।

তৃতীয় ধাপ : Block/Municipality/ Mun. Corp* এর জায়গায় আপনার বিডিও অফিস যেখানে আছে সেই জায়গার নাম লিখতে হবে। যেমন- আমার বিডিও অফিস/ Block হল নলহাটি-০১,

তাহলে আমি ইংরেজিতে বড় অক্ষরে NALHATI- 01 লিখতে হবে। আর আপনি যদি একজন শহরাঞ্চলের বাসিন্দা হন তাহলে আপনি সেখানে আপনার পৌরসভার নাম লিখতে পারেন।

চতুর্থ ধাপ : Gram Panchayat/Ward No* এর জায়গায় আপনি আপনার পঞ্চায়েতের নাম একইভাবে ইংরেজি বড় অক্ষরে স্পষ্ট করে লিখবেন। আর আপনি যদি শহরাঞ্চলের বাসিন্দা হন তাহলে আপনি আপনার Ward No* লিখবেন।

পঞ্চম ধাপ : Village/Road/ Street * এর কলমের জায়গায় আপনাকে আপনার নিজের গ্রামের নাম একইভাবে ইংরেজিতে বড় বড় অক্ষরে লিখতে হবে।

আর আপনি যদি একজন শহরাঞ্চলের নাগরিক হন তাহলে এখানে রাস্তার নাম অথবা Street নামের জায়গায় আপনার গলি মহল্লার নাম লিখতে হবে।

ষষ্ঠ ধাপ : Post Office* এর কলমের জায়গায় আপনাকে আপনার নিজের পোস্ট অফিসের নাম একইভাবে ইংরেজিতে বড় বড় অক্ষরে লিখতে হবে।

সপ্তম ধাপ : Pin Code* এর কলমের জায়গায় আপনাকে আপনার এলাকার পোস্ট অফিসের পোস্টাল কোড অথাৎ ছয় অঙ্কের পিন নম্বরটা ইংরেজিতে লিখতে হবে।

অষ্টম ধাপ : Police Station এর কলমের জায়গায় আপনাকে আপনার এলাকার থানার নাম একইভাবে ইংরেজি বড় বড় অক্ষরে লিখতে হবে।

Section C: Contact Details

প্রথম ধাপ : Primary Mobile No* (for getting SMS from F&S Deptt.) এই কলমটিতে আপনাকে আপনার মোবাইল নম্বরটি লিখতে হবে। কারণ এই নম্বরেই ফোন করে আপনাকে ফুড সার্কেল অফিস থেকে হেয়ারিঙের জন্য ডাকা হবে।

দ্বিতীয় ধাপ : Alternate mobile/ WhatsApp no. এখানে যদি আপনার দ্বিতীয় কোনো মোবাইল নম্বর থেকে থাকে যে নম্বরটিতে আপনি WhatsApp চালান সেই রকম কোনো মোবাইল নম্বর থাকলে আপনি দিতে পারেন।

তৃতীয় ধাপ : email id (if any) এই কলমে আপনার যদি কোনো ইমেল আইডি থাকে তাহলে দিতে পারেন। তবে দিতেই হবে এমন কোনো বাধ্য বাধকতা নেই।

চতুর্থ ধাপ : If you don’t want us to send e-bill and other important messages, tick the box এই কলমে আপনি যদি ইমেল আইডি কিংবা মোবাইল নম্বরে

খাদ্য দফতরের থেকে মোবাইলে ম্যাসেজ কিংবা ইমেল মারফতে কোনো রকমের আপডেট মেসেজ পেতে না চান তাহলে খালি বাক্সে (√) টিক চিহ্ন দিন।

Section D: Aadhaar Details of all existing DRC holders of the family*
(Form will not accepted if Aadhaar number is not given)

Section D এর কলম গুলোতে পরিবারের যে সমস্ত সদস্যদের আগে থেকেই রেশন কার্ড আছে তাদের আধার কার্ড নম্বর,রেশন কার্ড নম্বর ইত্যাদি দিতে হবে।

প্রথম ধাপ : Name of Member 1 (Head of Family)* এর কলমে পরিবারের অভিভাবকের নাম ইংরেজি অক্ষরে বড় হরফে এক একটি কলমে লিখতে হবে।

দ্বিতীয় ধাপ : Digital Ration Card No.* এর কলমে পরিবারের অভিবভাবক হিসাবে যিনি অন্য সদস্যের রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করছেন তার রেশন কার্ড নম্বরটি বসাতে হবে।

তৃতীয় ধাপ : Card Category* এর কলমে পরিবারের অভিভাবক যিনি পরিবারের অন্য সদস্যদের জন্য নতুন রেশন কার্ড আবেদন করছেন

তার যে ধরণের (AAY/PHH/SPHH/RKSY-1/RKSY-II/GEN) রেশন কার্ড আছে,সেই ক্যাটেগরীর আগের খালি বাক্সে টিক চিহ্ন (√) বসাতে হবে।

চতুর্থ ধাপ : Aadhaar number* (attach copy) কলমে অভিভাবকের নিজের আধার কার্ড নম্বর বসাতে হবে।

পঞ্চম ধাপ : Whether Person with Disability (PWD) এই কলমে আবেদনকারী যদি শারীরিকভাবে অক্ষম অথাৎ বিকলাঙ্গ হয় তাহলে আগের খালি বাক্সে (√) টিক চিহ্ন বসাতে হবে।

তবে আবেদনকারী যদি শারীরিকভাবে সুস্থ ও স্বাভাবিক একজন মানুষ হন তাহলে কিন্তু এখানকার কোনো বাক্সে টিক চিহ্ন দেওয়্যার দরকার নেই বাক্স গুলোতে  ড্যাস চিহ্ন (–) বসিয়ে দিন।

নোট : এখানে Section D এর কলমে অভিভাবক সহ পরিবারের মোট চার জন সদস্যের নাম,আধার কার্ড নম্বর,রেশন কার্ড নম্বর সহ ডিটেলস দেওয়ার কলম রয়েছে।

তাই আপনারা সবসময় পরিবারে যতজন সদস্যের বর্তমান রেশন কার্ড আছে,অভিভাবক সহ পরিবারের চার জন সদস্যের রেশন কার্ড সহ ডিটেলস পূরণ করার অবশ্যই চেষ্টা করবেন।

আমরা এখানে শুধু অভিভাবকের ডিটেলস পূরণ করে দেখলাম,বাকি পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের ডিটেলস একইভাবে দেখে দেখে আপনাদের পূরণ করতে হবে।

এইভাবে রেশন কার্ড ফর্ম ৪ আগাগোড়া ভালোভাবে ফিলাপ করার পর আপনাকে সবথেকে নিচে ইংরেজিতে লেখা স্ব-ঘোষণাপত্রটির চেক বক্সে টিক চিহ্ন (√) বসাতে হবে।

[√ ] I agree that all inputs given above are true to the best of my knowledge. I agree that the application may be rejected, or the Ration Card f issued, may be cancelled if any information furnished here is found to be false. I also acknowledge that other legal action may be taken against me for furnishing wrong information or hiding any relevant information, either at the time of application or at later stage.

এরপর বামদিকে Date: এর জায়গায় যেদিন আবেদন করছেন সেই দিনের তারিখ বসাতে হবে। তারপর Signature /LTI of the applicant এর জায়গায়

অভিভাবক যিনি আবেদন করছেন তাকে সই করতে হবে। আর অভিভাবক যিনি আবেদন করছেন তিনি যদি সই করতে না পারেন তাহলে তার নাম লিখে বাম হাতের বুড়ো আঙুলের ছাপ দিতে হবে।

রেশন কার্ড ফর্ম ৪ ডাউনলোড করে ফিলাপ করার সময় সাথে কি কি ডকুমেন্ট দিতে হবে

  • পরিবারের অভিভাবক সহ পরিবারের আরো অন্যান্য সদস্য যাদের রেশন কার্ড আছে অথাৎ যাদের ডিটেলস আপনি রেশন কার্ডের ৪ নং ফর্মে পূরণ করেছেন তাদের সকলের রেশন কার্ডের জেরক্স দিতে হবে।
  • একইভাবে পরিবারে যাদের রেশন কার্ড আছে এবং যাদের নতুন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করছেন তাদের প্রত্যেকের আধার কার্ডের জেরক্স দিতে হবে। (যাদের বয়স ০৫ বছরের নিচে তাদের আধার কার্ড লাগবে না)
  • যে বাচ্চার বয়স ০৫ বছরের নিচে তাদের আধার কার্ড দেওয়ার প্রয়োজন নেই। তবে পরিবারে যে সমস্ত সদস্যদের ভোটার কার্ড আছে তারা তাদের ভোটার কার্ডের জেরক্স অবশ্যই দেবেন।

নোট : সমস্ত ডকুমেন্টের জেরক্স কপির উপর Self Attested লিখে নিজের নাম এবং তারিখ লিখে দিতে হবে। আপনি যদি স্বাক্ষর করতে না পারেন তাহলে আপনাকে নিজের নাম লিখে টিপ্ সই দিতে হবে।

পরিশিষ্ট

রেশন কার্ড ৪ নম্বর ফর্ম ফিলাপ করার পর আপনাকে আপনার নিকটস্থ বিডিও অফিসের সংশ্লিষ্ট খাদ্য দফতরের অফিসে গিয়ে সমস্ত ডকুমেন্ট সহ রেশন কার্ড ফর্ম ৪ জমা করতে হবে।

অথবা আপনি পশ্চমবঙ্গ সরকারের দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে সরাসরি রেশন কার্ড ফর্ম ৪ জমা করে পরিবারের সদস্যদের নতুন রেশন কার্ড পাওয়ার জন্য আবেদন করতে পারেন।

রেশন কার্ড ফর্ম ৪ ডাউলোড ও ফিলাপ করে দুয়ারে সরকার কিংবা খাদ্য দফতরের অফিসে যেখানেই জমা করুন না কেন,রেশন কার্ড ফর্ম ৪ জমা করার সময় আপনাকে রিসিভ ভাউচার হিসাবে,ফর্মের নিচের অংশ কেটে প্রাপ্তি স্বীকার বাবদ

সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের সই ও সিল সহ দ্বারা একটি প্রাপ্তি স্বীকার কপি দেওয়া হবে। এই প্রাপ্তি স্বীকার কপির উপর থাকা বারকোড দিয়েই আপনি আপনার রেশন কার্ডের আবেদনের স্থিতি চেক করতে পারবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here