মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korer upay)

সব মেয়েই চায় তার মুখটা সুন্দর দাগ বিহীন টকটকে গৌর উজ্জ্বল হোক ! কিন্ত যে সমস্ত মেয়েদের মুখের কালো দাগ আছে , শুধুমাত্র তাদের মনের কষ্ট যে কতটা গভীর একমাত্র ঈশ্বরই অনুভব করতে পারেন।

আমরা এই আর্টিকেলের মাধ্যমে মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় নিয়ে কতগুলো টিপস আপনাদের সাথে শেয়ার করব এই সমস্ত টিপস গুলো ফলো করলে আপনারা নিজে থেকেই মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় করতে পারবেন।

এখনকার আধুনিক দিনের মেয়েরা ফর্সা ত্বকের জন্য এতটাই মরিয়া থাকে যে তারা বাজারে উপলব্ধ কেমিক্যাল প্রোডাক্ট গুলোর উপর ভরসা করে সুন্দর দাগ বিহীন মুখমন্ডল পাওয়ার আশায়

মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় হিসাবে নানান ধরণের ক্রিম ও পাওডার ব্যবহার করে। কিন্ত এখানে কথা হল সবসময় বাজারে উপলব্ধ কস্মেটিক্স প্রোডাক্ট গুলো ব্যবহার করেও মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় করা যায়না।

আমরা আমাদের আর্টিকেলের মাধ্যমে সম্পূর্ণ ঘরোয়াভাবে মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায়ের ব্যাপারে আলোচনা করব। আশা করি আপনারা এই সমস্ত ঘরোয়া উপায় গুলো অবলম্বন করে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় করতে পারবেন।

Table of Contents

মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায়

আমাদের মূল আলোচনার বিষয় বস্তু হল মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় গুলো নিয়ে কথা বলা। তবে এর আগে অবশ্য আমরা মেয়েদের মেয়েদের গোপনাঙ্গের কালো দাগ দূর করার উপায়, মেয়েদের সাদা স্রাব দূর করার উপায়,

এই সমস্ত নারীদেহে হওয়া জটিল সমস্যা গুলো নিয়ে বিস্তারে আলোচনা করেছিলাম। আপনারা যারা এই ধরণের সমস্যায় ভুগছেন বা এই ব্যাপারে জানতে আগ্রহী তারা উপরের দেওয়া লিঙ্কে ক্লিক করে আমাদের ঐ সমস্ত আর্টিকেল গুলো পড়তে পারেন।

আজকাল নিত্যদিনের কাজকর্মে হেলায় অবহেলায় সব মেয়েদেরই কম বেশি ত্বকের সমস্যা আছে। আমরা এখন মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় হিসাবে কতগুলো ঘরোয়া টিপস আপনাদের সাথে শেয়ার করব

সেই সমস্ত টিপস গুলো ফলো করলে আপনারা নিজে নিজেই ঘরে বসেই কোনো রকম কসমেটিক্স প্রোডাক্ট ব্যবহার না করেই নিজেদের মুখের কালো দাগ গুলো দূর করতে পারবেন।

মুখে কালো দাগ হওয়ার কারণ

আপনি যদি সাধারণভাবে মুখে কালো দাগ হওয়ার কারণ গুলো নিয়ে রিসার্চ করার চেষ্টা করেন তাহলে মুখ্য রুপে ০২-০৪ টি কারণকেই, অপরিহার্যভাবে মুখের কালো দাগ হওয়ার কারণ হিসাবে খুঁজে পাবেন।

০১. সূর্যের অতি বেগুনী রশ্মীর প্রবাভ : আজকাল পুরুষের সাথে মেয়েরাও সমাজে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ কর্ম করেন। সুতরাং কর্মের তাগিদে ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েদেরও বাড়ীর বাইরে যেতে হয় এটাই স্বাভাবিক।

তবে সমাজে মেয়েরা ছেলেদের মত সমান কাজকর্ম করলেও বিধাতার বিধানে পুরুষের তুলনায় নারীদের ত্বক অনেক বেশি কোমল ও নমনীয় অথাৎ ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের ত্বক বেশি সংবেদনশীল।

মুখের কালো দাগ দূর করার উপায়
মুখের কালো দাগ দূর করার উপায়

তাই যে সমস্ত মেয়েদের জীবিকা বা অন্যকারণে প্রখর রৌদের দ্রাবদাহে বাড়ীর বাইরে যেতে হয়, সেই সমস্ত মেয়েদের কোমল ত্বক সূর্যালোকের সংস্পর্শে আসে এবং ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের ত্বককে অনেক বেশি ক্ষতি করে।

সূর্যের ক্ষতিকর অতি বেগুনী রশ্মীর প্রভাবে মেয়েদের ত্বকে কালো ছোপ, ছোপ দাগ দেখতে পাওয়া যায়। ইংরেজীতে একে আবার হাইপারপিগমেন্টেশন বলা হয়।

০২. মেয়েদের শরীরে বিভিন্ন সময়ে হওয়া হরমোনাল ডিস-ব্যালেন্স : বিধাতা নারীদেহ অনেক জটিলভাবে রচনা করেছেন এবং নারীদেহের বৃদ্ধি বা Groth হল সম্পূর্ণ রুপে হরমোনের উপর নির্ভরশীল।

অনেক সময় থাইরয়েড এবং পিটুইটারী গ্রন্থী নিঃসৃত নির্যাস বা হরমোন সঠিকভাবে ক্ষরিত না হওয়ার কারণে বা অতিরিক্ত হরমোন ক্ষরণের জন্যেও মেয়েদের মুখে কালো দাগের সমস্যা দেখতে পাওয়া যায়।

এছাড়াও মেয়েদের প্রেগন্যান্সি ও মেনোপজের কারণে মেয়েদের শরীরের মধ্যে হরমোনের ডিস-ব্যালেন্সিং লক্ষ করা করা যায়। তার প্রভাবে মেয়েদের ঘাড়ে, গর্দানে, মুখমন্ডল, গলা ইত্যাদি জায়গায় কালো দাগ ছোপ লক্ষ করা যায়।

০৩. নারীদেহ লোমহীন রাখার চেষ্টা : আজকালকার মেয়েরা ত্বককে লোমহীন করার চেষ্টায় প্রতিমাসে পার্লারে গিয়ে গাদা গাদা টাকা খরচ করে পেডিকিউর ও মেনিকিওর করেন।

এখানে সমস্যা হল কম সময়ে পেডিকিওর ও মেনিকিওর করে শরীর লোমহীন হয়ে যায় ঠিকই, কিন্তু মেয়েদের বয়স বাড়ার সাথে সাথে নিরন্তর শরীর লোমহীন করার চেষ্টায়

ত্বকের স্পর্শকাতরতা অনেক বেশি বেড়ে যায় যা বয়স বাড়ার সাথে সাথে ত্বকে দাগ বা কালো ছোপের মত দাগ সৃষ্টি করে। এতে লোমহীন ত্বক পাওয়া যায় ঠিকই কিন্ত শরীরের ত্বকের নতুন উপসর্গ নিয়ে কালো দাগ দেখা যায়।

০৪. মুখে ব্রণ বা চোট জনিত কারণে হওয়া কালো দাগ : বাড়তি বয়সের মেয়েদের মুখে ব্রণর সমস্যা, মেয়েদের জীবনে খুব বড় একটা অভিশাপ স্বরূপ। অনেক সময় ব্রণ ভালো হয়ে গেলেও মেয়েদের মুখে ব্রণর কালো দাগ কিন্তু সহজে মিটতে চায়না।

তাই মুখে হঠাৎ করে ব্রণ দেখা দিলে খুঁটোনোর চেষ্টা করবেন না। কারণ অনেক সময় ব্রণ খুটে দিলে মুখের ত্বকে গর্ত হওয়ার ফলে আগে সেই গর্ত ধীরে ধীরে কালো দাগে রূপান্তরিত হয়ে যায়। এছাড়াও মুখমন্ডলে একজিমা ও অ্যালার্জির প্রতিক্রিয়ায় জন্যেও মুখে কালো দাগের সমস্যা হতে পারে।

মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

এতোক্ষণ আমরা মেয়েদের মুখের কালো দাগ হওয়ার কারণ গুলো নিয়ে কথা বললাম। এবারে আমাদের মূল আলোচনার বিষয় মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় নিয়ে আলোচনা করব।

চলুন তাহলে এবারে আমরা মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় বা ঘরোয়া উপায়ে মুখের কালো দাগ কীভাবে দূর করা যায় সেই বিষয়ে জানার চেষ্টা করি-

০১. পাকা পেঁপে দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

ভিটামিন-সি (Vitamin C) এর ব্যবহার অতিপ্রাচীন কাল থেকে রূপচর্চা ও সৌন্দর্য বৃদ্ধির কাজে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। তবে আপনাকে আলাদাভাবে চেহারায় ভিটামিন-সি (Vitamin-C ) এর প্রয়োগ করার দরকার নেই।

বাজারে সহজ উপলব্ধ পাকা পেঁপের মধ্যে প্রচুর পরিমানে প্রাকৃতিক ভাবে ভিটামিন- সি (Vitamin C) মজুত থাকে। আপনি পাকা পেঁপে সেবন করে যেমন শরীরে ভিটামিন সি এর চাহিদা মেটাতে পারেন।

তেমনি আবার কয়েকটি পাকা পেঁপের টুকরো একটি পাত্রের মধ্যে নিয়ে ভালো করে চটকে পেঁপের পেস্ট বানাতে পারেন অথবা মিক্সার গ্রিন্ডার মেশিন দিয়ে পাকা পেঁপের পেস্ট তৈরী করে নিতে পারেন।

এরপর ভালো করে মুখ ধুয়ে পুরো চেহারার উপর পাকা পেঁপের পেস্ট মেখে নিন। এই ভাবে ২০-২৫ মিনিট পাকা পেঁপের পেস্ট মেখে বসে থাকার পর সময়ের অন্তরালে মুখ মন্ডলে লাগানো পাকা পেঁপের

পেস্ট টিকে পরিষ্কার জলে ধুয়ে নিতে হবে। এইভাবে নিয়মিত পাকা পেঁপের পেস্ট মুখের চেহেরায় লাগালে খুব অল্পদিনের মধ্যে ত্বকে জেল্লা ফিরে আসবে এবং ত্বকের কালো দাগ গুলো দূর হয়ে যাবে।

০২. আলুর রস দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

বাঙালিদের প্রিয় খাদ্য ভাতের পাতে আলু থাকবেনা এমনটা কিন্ত মেনে নেওয়া যায়না। আপনি আপনার নিত্যদিনের হেঁসেলে ব্যবহৃত আলু দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় করতে পারেন।

আলু একটি খুব ভাল এনজাইম উপাদান, আলুর মধ্যে ক্যাটেকোলেজ নামের এনজাইম উপাদান থাকে। যা আমাদের ত্বকের কালো দাগ দূর করতে সাহায্য করে।

মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় হিসাবে, আপনারা নিজে নিজেই রান্না ঘর থেকে ০১-০২ টি আলুকে ছোট ছোট গোল গোল করে কেটে নিয়ে সেই আলুর রস

আপনার চেহারায় যে সমস্ত জায়গা গুলোতে কালো দাগ রয়েছে সেই সমস্ত জায়গা গুলোতে ঘষে ঘষে লাগান। নিয়মিত আলুর রস চেহারায় ঘষলে ত্বকের কালো দাগ দূর হয় এবং ত্বক গৌর উজ্জ্বল ও ত্বকত্বকে হয়।

এছাড়া আলু ভালো করে ধুয়ে নিয়ে আলু গুলো থেঁতলে নিয়ে আলুর সঙ্গে মধুর মিশ্রণে আলুর ফেস প্যাক তৈরী করে মুখে লাগালে মুখের কালো দাগ দূর হয়ে যায়।

০৩. লেবু দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

আপনারা সবাই জানেন লেবুর মধ্যে প্রাকৃতিক ভাবেই প্রচুর পরিমানে ভিটামিন-সি (Vitamin-C) থাকে। আপনি ভিটামিন-সি এর অন্যতম উপাদান হিসাবে লেবুর রসকে প্রাকৃতিক ব্লিচ হিসাবে মুখের ত্বকে ব্যবহার করে লেবু দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় করতে পারেন।

এমনিতেই লেবুর মধ্যে ভিটামিন-সি (Vitamin-C) ছাড়াও লেবুর মধ্যে সাইট্রিক অ্যাসিড থাকে। আয়ুর্বেদ অনুসারে সাইট্রিক অ্যাসিড এমনিতেই দাগ হটানোর জন্যে কিন্ত বেশ কার্যকরী।

এরজন্যে সবার প্রথমে আপনাকে একটি পরিষ্কার কাঁচের পাত্রে লেবুর রস নিচড়ে নিয়ে লেবুর রস সংগ্রহ করতে হবে। তারপর তুলোর বল লেবুর রসে ভিজিয়ে নিয়ে মুখের কালো দাগ ছোপ হওয়া অংশ গুলোতে লাগাতে হবে।

তবে মুখের কালো দাগ বা ডার্ক স্পটের সমস্যায় চটজলদি মুক্তি পাওয়ার জন্যে আপনি লেবুর রসের সাথে পরিমানমত দই মিশিয়ে নিয়ে লেবুর রস ও দইয়ের মিশ্রণ ডার্ক স্পটে লাগাতে হবে।

এতে খুব শীঘ্র আপনি আপনার মুখের কালো দাগের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। তবে যে সমস্ত মেয়েদের ত্বক সংবেদনশীল, তারা লেবুর রস ও দইয়ের মিশ্রনের সাথে দুই চামচ মধু মিশিয়ে নিয়ে

মুখের কালো দাগ গুলোতে ১০-১৫ মিনিট লাগিয়ে রেখে পরিষ্কার জলে মুখ ধুলে মুখের কালো দাগের সমস্যা দূর হয়ে যায়। তবে একটা জিনিস সর্বদা মাথায় রাখবেন সবসময় মুখমণ্ডলে ব্যবহারের জন্যে তাজা লেবুর রস মুখমন্ডলের ত্বকে ব্যবহার করবেন।

বোতলে নির্যাস করে রাখা লেবুর রস না ব্যবহার করাটাই ভালো। কারণ লেবুর রস নির্যাস করে বোতলে কিংবা খোলা পাত্রে সঞ্চয় করে রাখলে, সেই লেবুর রসের মধ্যে প্রিজ়ারভেটিভ জন্ম নেয় যা আমাদের ত্বককে জ্বালিয়ে দিতে পারে।

০৪. অ্যালোভেরা দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

অ্যালোভেরা সহজলভ্য একটি সরস কান্ড জাতীয় উদ্ভিদ। আপনাদের যাদের বাড়ীতে অ্যালোভেরা গাছ আছে তারা অ্যালোভেরা গাছের কান্ড থেকে একটি সরস অ্যালোভেরা পাতা কেটে নিয়ে চামচ দিয়ে অ্যালোভেরা জেল টুকু পাতা থেকে আলাদা করে নিন।

তবে যাদের বাড়িতে অ্যালোভেরার গাছ নেই তারা বাজার থেকে যে কোনো ভালো কোম্পানীর অ্যালোভেরা জেল কিনে আনতে পারেন। তারপর ০৫ চামচ অ্যালোভেরা জেলের সঙ্গে ০২-০৪ কুঁচি শশা এবং

তার সঙ্গে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস এবং চন্দন গুঁড়ো মিশিয়ে অ্যালোভেরার প্রলেপ তৈরী করে নিতে হবে। এরপর পরিষ্কার জলে মুখ ধুয়ে অ্যালোভেরা চন্দনের প্রলেপটি মুখে ভালো করে লাগাতে হবে।

পুরো মুখে অ্যালোভেরা চন্দনের প্রলেপটি লাগানোর পর ১৫-২০ মিনিট প্রলেপটি শুকোনোর জন্যে অপেক্ষা করতে হবে। প্রলেপটি শুকোনোর পর পরিষ্কার ঠান্ডা জলে ভালো করে মুখ ধুয়ে নিতে হবে।

তবে আপনি যদি বাড়িতে চন্দন গুঁড়ো জোগাড় করতে না পারেন তাহলে অ্যালোভেরা জেলের সাথে চিনি ও লেবুর মিশ্রনে প্রলেপ তৈরী করে মুখমন্ডলের ত্বকে লাগাতে পারেন, এতে মুখের কালো দাগ খুব অল্প দিনের মধ্যেই নির্মূল হয়ে যাবে।

০৫. ওটমিল দিয়ে মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

আপনি কি জানেন ? ওটমিল দিয়ে আপনি আপনার ত্বকের যত্ন নিয়ে মুখের বিভিন্ন ধরণের কালো দাগ গুলো দূর করতে পারেন। এরজন্যে আপনাকে সবার প্রথমে আধ কাপ ওটস গুঁড়োর সঙ্গে ০১ থেকে ০২ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিয়ে,

ওটসের প্রলেপ তৈরী করতে হবে। তারপর পরিষ্কার জলে মুখ ধুয়ে মুখমন্ডল ভালো করে টিসু দিয়ে মুছে নিতে হবে। এরপর ওটসের প্রলেপটি হাতে করে নিয়ে আপনার পুরো চেহেরাতে ঘষে ঘষে লাগাতে হবে।

ওটসের প্রলেপটি ঠিকঠাকভাবে পুরো চেহেরায় লাগানোর পর আপনাকে ১৫-২০ মিনিট পুরো চেহেরাটা শুকনো পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এরপর পুরো চেহেরায় ওটসের প্রলেপটি শুকিয়ে গেলে ঈষদ উষ্ণ গরম জল দিয়ে পুরো চেহেরাটা ধুয়ে ফেলতে হবে।

তবে আপনি যদি আরো তাড়াতাড়ি মুখের হারানো জেল্লা ফিরে পেতে চান তাহলে আপনাকে ওটস মিলের সঙ্গে ০১ টেবিল চামচ করে দুধ ও মধু মিশিয়ে ওটস মিলের প্রলেপ বানিয়ে নিতে হবে।

মুখের কালো দাগ দূর করার উপায়
মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায়

এরপর একইভাবে আপনাকে আপনার চেহেরার দাগ ও ছোপ ওয়ালা অংশ গুলোতে ওটসের প্রলেপ লাগাতে হবে। ওটস মিলের মধ্যে থাকা আয়ুর্বেদিক ওষধীয় গুণাবলী আমাদের ত্বককে এক্সফোলিয়েট করে ত্বককে আরো বেশি গৌর উজ্জ্বল বানায়।

০৬. চন্দন দিয়ে মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

১৭ থেকে ২১ বছরের মেয়েদের চেহেরায় একটি গভীরতম সমস্যা হল মুখের ত্বকে ব্রণ হওয়া। কিন্ত এখানে সমস্যা হল সময়ের সাথে মেয়েদের ব্রণ ঠিক হয়ে যায় ঠিকই কিন্ত ব্রণর দাগ সহজে ঠিক হতে চায়না।

আপনি যদি ব্রণের এই সমস্ত দাগ গুলোর ব্যাপারে যদি যত্নশীল হয়ে পড়েন তাহলে কিন্ত আপনার মুখে ব্রণের এই দাগ চিরস্থায়ী ভাবে থেকে যাওয়ার একটা চান্স থেকেই যায়।

তাই যে সমস্ত মেয়েদের মুখে ব্রণ হয়তো চলে গেছে, কিন্ত মুখে ব্রণের দাগ রয়েই গেছে তারা তাদের মুখে ব্রণের কালো দাগ দূর করার জন্যে চন্দনের ব্যবহার করতে পারে।

এরজন্যে সবার প্রথমে আপনাকে বাজার থেকে একটি ভালোমানের চন্দনগুঁড়োর প্যাকেট কিনে আনতে হবে। তারপর একটি কাঁচের পেয়ালায় ০২ টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়োর সঙ্গে ০৪ চামচ গোলাপ জল মিশিয়ে চন্দনের প্রলেপ তৈরী করতে হবে।

এবার সেই চন্দনের প্রলেপ আপনার মুখের ত্বকের ব্রণের কালো দাগ ছোপ ওয়ালা অংশ গুলোতে ভালো করে লাগিয়ে নিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। এরপর চন্দনের প্রলেপ শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পরিষ্কার জলে মুখ ধুয়ে নিন।

এইভাবে আপনি আপনার মুখের ব্রণের দাগ ছোপ ওয়ালা অংশগুলোতে সপ্তাহে অন্তত ০২ বার নিয়ম করে চন্দনের প্রলেপ লাগান, তাহলে দেখবেন মাস দুয়েকের মধ্যেই আপনার মুখের কালো দাগ গুলো চেহেরায় মিলিয়ে গিয়ে আপনার চেহেরায় আগের রঙ ফিরে আসছে।

০৭. ভিটামিন-ই (Vitamin-E) এর ঘাটতি পূরণ করে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায়

অনেকসময় মেয়েদের শরীরে ভিটামিন-ই (Vitamin-E) এর ঘাটতির অভাবে চেহারায় কালো দাগ ছোপ দেখতে পাওয়া যায়। তাই নিয়মিত রূপচর্চার পাশাপাশি নিজেদের খাদ্যতালিকায় প্রতিদিন

যথেষ্ট পরিমানে ন্যাচারাল প্রোটিন, ভিটামিন খাচ্ছেন কিনা সেদিকেও নজর দেওয়াটা অত্যন্ত জরুরী। তাই প্রতিদিন খাদ্যতালিকায় শাক সবজি ফলমূল খাওয়ার সাথে সাথে, আমন্ড বাদাম, সূর্যমুখীর বীজ, শুকনো অ্যাপ্রিকট ইত্যাদি খাদ্যতালিকায় রাখুন।

এইসমস্ত উপাদেয় গুলো আমাদের শরীরে ভিটামিন-সি (Vitamin-E) এর ঘাটতি মিটিয়ে আমাদের ত্বকের মৃত কৌশিকা গুলোকে সজাগ করে ত্বকের জেল্লা ফিরিয়ে আনে।

০৮. বাদাম তেল ব্যবহার করে মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

যে সমস্ত মেয়েদের চোখের নিচে কালো দাগ আছে তারা রাত্রে ঘুমোনোর আগে চোখের নিচে কালি পড়া অংশ গুলোতে বাদাম তেল লাগায় তাহলে তারা খুব অল্পদিনেই চোখের নিচের কালি পড়া দাগ থেকে রেহাই পাবে।

এমনিতেই বাদাম তেল, মানে আমন্ড তেলের মধ্যে ভিটামিন-ই (Vitamin-E) এর স্রোত আছে, যা আমাদের ত্বকের দাগ ছোপ কমাতে সাহায্য করে। তাই এরজন্য সবার প্রথমে আপনাকে একটি ভার্জিন বাদাম তেল মানে পিওর আমন্ড অয়েল কিনে আনতে হবে।

এরপর প্রতিদিন রাত্রিবেলা ঘুমোনোর আগে কয়েক ফোঁটা বাদাম তেল নিয়ে সেই তেল চোখের নিচের কালি পড়া স্থান গুলোতে লাগাতে হবে। এইভাবে আপনি দিন দশেক নিয়ম করে চোখের নিচের কালি পড়া জায়গা গুলোতে বাদাম তেল মালিশ করেন, তাহলে খুব অল্পদিনে আপনি এর আশ্চর্য ফল হাতে নাতে দেখতে পাবেন।

০৯. হলুদ দিয়ে মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

আপনারা সকলেই জানেন অতি প্রাচীনকাল থেকেই হলদু রূপচর্চার একটি অত্যন্ত উপযোগী আয়ুর্বেদিক ওষধীয় উপাদান হিসাবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

হলুদের মধ্যে থাকা টেট্রাহাইড্রোকারকিউমিন নির্যাস চেহেরার কালো দাগ দূর করতে সাহায্য করে। এরজন্যে আপনাকে একটি পাত্রে ০১ চামচ হলুদ গুঁড়ো নিয়ে নিতে হবে এবং তার সাথে ০২ চামচ দুধ ও ০১ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে প্রলেপ তৈরী করে নিতে হবে।

এইভাবে ঘরে বসে হলুদের প্রলেপ তৈরী করে নেওয়ার পর স্নান করার ১৫ মিনিট আগে ভালো করে মুখ ধুয়ে হলুদের প্রলেপটি পুরো চেহেরায় লাগিয়ে নিতে হবে। তারপর চেহেরায় হলুদের প্রলেপ শুকিয়ে গেলে স্নান করার সময় ফ্রেস ওয়াস দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে হবে।

একইভাবে আরো একটি উপায়ে ০১ চামচ হলুদ গুঁড়োর সঙ্গে ০১/০২ চামচ মধু এবং তার সাথে ০১ চামচ বাদাম তেল মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরী করে নিয়েও আপনি আপনার চেহেরায় লাগাতে পারেন।

এককভাবে দেখতে গেলে দুই-ভাবে হলুদের মিশ্র্রণ চেহেরায় লাগালে আশ্চর্জজনক ফল পাওয়া যায়। হলুদের মিশ্রণ আপনার ত্বককে আগের তুলনায় অনেক বেশি গৌর উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।

১০. টমেটোর রস দিয়ে মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

টমেটো পাড়া গ্রাম থেকে শুরু করে শহর, সমস্ত রাঁধুনির গৃহে একটি উপাদেয় ব্যবহার যোগ্য জিনিস। আর এই টমেটোর মধ্যে কিন্ত প্রচুর পরিমানে ভিটামিন-সি (Vitamin-C) আছে।

আমরা ভালোভাবেই জানি ভিটামিন-সি প্রাকৃতিকভাবে আমাদের শরীরের দাগ ছোপ গুলো দূর করতে সাহায্য করে। এছাড়াও টমেটোর মধ্যে লাইকোপেন থেকে যা দ্রুত দাগ মেটাতে সাহায্য করে।

তাই আপনি যদি টমেটো কেটে টমেটোকে আপনার চেহেরায় স্ক্রাব করেন তাহলে টমেটোর মধ্যে থাকা প্রাকৃতিক অ্যাসিরিঞ্জেন্ট গুণাবলীর কারণে আপনার চেহেরার দাগ ছোপ গুলো নির্মূল হয়ে যাবে।

১১. দুধ দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় ( Dudh Diye Meyeder mukher Kalo dag dur Korer upay)

শাস্ত্রে বলা হয়েছে গরুর দুধ অমৃত সমান। নিয়মিত গরুর দুধ পান করলে যেমন আমাদের শরীরের প্রোটিন, ভিটামিন ও মিনারেলস এর চাহিদা পূরণ হয়।

ঠিক তেমন আপনি যদি আপনার ত্বকে গরুর কাঁচা দুধ লেপন করেন তাহলে আপনার ত্বকের কোমলতা ও জেল্লা বৃদ্ধি পায়। এরজন্যে আপনাকে একটি কাঁচের পাত্রে পরিমান মত কাঁচা দুধ নিয়ে তার সাথে কয়েক ফোঁটা মধু মিশিয়ে নিয়ে

দুধ ও মধুর মিশ্রণটিকে তুলোর বলে করে চেহেরায় লাগাতে হবে। এইভাবে আপনি যদি টানা ০১ মাস কাঁচা গরুর দুধ চেহেরায় লাগান তাহলেই আপনার ত্বকের হারানো আগের টোন ফিরে পাবেন

১২. দুধের শর দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

দুধের শর কিন্ত কালো দাগ ছোপ দূর করার জন্যে খুব কার্যকর। এরজন্যে আপনাকে দুধের শরের সঙ্গে টমেটোর রস মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরী করে আপনার চেরার কালো ছোপ পড়া জায়গা গুলোতে লাগিয়ে ১৫ মিনিট মত অপেক্ষা করতে হবে।

তারপর চেহেরা শুকিয়ে গেলে চেহেরা পরিষ্কার জল দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। এছাড়াও দুধের ঘোলে সুতির কাপড় ভিজিয়ে নিয়ে দাগ ছোপ ওয়ালা জায়গা গুলোতে লাগিয়ে নিতে পারেন।

এতেও একইভাবে সমান উপকার পাওয়া যায়। কারণ এমনিতেই দুধের মধ্যে ল্যাকটিক অ্যাসিড থাকে যা আমাদের মুখের কালো দাগ ছোপ গুলোকে মেলাতে সাহায্য করে।

১৩. কমলা লেবুর খোসা দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

আমরা নিজেদের অজান্তেই কমলা লেবু খেয়ে কমলা লেবুর খোসা ফেলে দিই, কিন্ত আপনি জানেন কি কমলা লেবুর খোসার মধ্যে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন- সি এবং সাইট্রিক অ্যাসিড আছে যা আমাদের ত্বকের কালো দাগ ছোপ গুলোকে মেলাতে সাহায্য করে।

এরজন্যে আপনাকে কমলা লেবু খাওয়ার পর খোসা গুলো ফেলে না দিয়ে কমলা লেবুর খোসা গুলোকে রোদে শুকিয়ে নিতে হবে। তারপর খোসা গুলো রোদে শুকিয়ে গেলে, কমলা লেবুর খোসা গুলোকে মিক্সার গ্রিন্ডার মেশিন দিয়ে গুঁড়ো করে নিতে হবে।

তারপর একটি পটে দুই চামচ কমলা লেবুর খোসা গুঁড়ো নিয়ে তার সঙ্গে লেবুর রস ও দই মধু দিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরী করতে হবে। কেপে সেই মিশ্রণ আপনার ত্বকের কালো ছোপ ও দাগওয়ালা জায়গা গুলোতে লাগাতে হবে।

এইরকমভাবে আপনি যদি মাস দুয়েক আপনার চেহেরায় কমলা লেবুর খোসার মিশ্রটি লাগান তাহলে খুব অল্পদিনেই আপনার চেহেরায় আলাদা রকমের দৃপ্তি ফিরে আসবে।

১৪. মুলতানি মাটি দিয়ে মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

মুলতানি মাটি যুগ যুগ ধরে রূপচর্চার একটি উপাদেয় উপাদান হিসাবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। যে সমস্ত মেয়েদের ত্বক তৈলাক্ত কোনো কিছু ম্যাচ করতে চায়না।

সেই সমস্ত মেয়েরা মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় হিসাবে মুলতানি মাটির সঙ্গে লেবুর রস এবং টক দই মিশিয়ে চেহেরায় লাগাতে পারেন। এতে মুখের কালো দাগ দূর হওয়ার সাথে সাথে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে।

১৫. পাকা কলা দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

কাঁচা কলা বা কলার গাছের রস লেগে যেমন আমাদের জামা কাপড়ে কালো দাগের সৃষ্টি হয়, ঠিক একইভাবে পাকা কলা কিন্ত তার বিপরীত। পাকা কলার পেস্ট মুখে লাগালে পাকা কলা আমাদের মুখের কালো দাগ ছোপ গুলোকে মেটাতে সাহায্য করে।

১৬. ভিনেগার দিয়ে মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

যে সমস্ত মেয়েদের মুখে কালো মেছেতার মত দাগের সমস্যা আছে তারা মেছেতার কালো দাগের জায়গায় সামান্য ভিনিগারের সাথে লেবুর রস দিয়ে ঘষলে চেহেরা থেকে কালো মেছেতার দাগ নির্মূল হয়ে যায়।

১৭. গ্লিসারিন দিয়ে মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

যে সমস্ত মেয়েরা মুখের কালো দাগের সমস্যা নিয়ে ভুগছেন তারা যদি নিয়ম করে ভিনিগারের সঙ্গে কয়েক চামচ গুঁড়ো আমূল দুধ মিশিয়ে পেস্ট তৈরী করে চেহেরায় লাগান তাহলে মুখের কালো দাগের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন।

১৮. নারিকেল তেল দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

আপনারা মেয়েরা মাথায় হেয়ার অয়েল হিসাবে চুলে যে নারিকেল তেল লাগান, সেই তেল দিয়েও মুখের কালো দাগ দূর করা যায়। এরজন্যে আপনাকে নারিকেল তেলের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা টি-ট্রি অয়েল মিশিয়ে

মুখের কালো দাগ ছোপ ওয়ালা জায়গা গুলোতে লাগাতে হবে। এইভাবে হপ্তা দুয়েক মুখের কালো দাগের জায়গায় নারিকেল তেল ও টি-ট্রি অয়েলের মিশ্রণ লাগালেই কালো দাগের সমস্যায় প্রতিকার পাবেন।

১৯. রসুন ও লবঙ্গের মিশ্রণ দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

যে সমস্ত মেয়েরা মুখে কালো দাগের সমস্যায় ভুগছেন, তারা রাতে শোয়ার আগে রসুন ও লবঙ্গ থেঁতলে রসুন ও লবঙ্গের মিশ্রণ তৈরী ঘুমোনোর সময় পুরো মুখে লাগিয়ে নিন।

তারপরের দিন সকাল বেলা পরিষ্কার ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার ত্বকে থাকা নানান ধরণের ফাঙ্গাস ব্যাকটেরিয়ার নাস হবে এবং আপনার ত্বক ব্যাকটেরিয়া ফ্রি হবে।

২০. গোলাপ জল দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় (Meyeder mukher kalo dag dur korar upay)

মার্কেটে সহজ উপলব্ধ অতি সাশ্রয়ী রূপ চর্চার প্রয়োজনীয় উপাদান হল গোলাপ জল। আপনার মুখের কালো দাগ গুলো দূর করার জন্যে গোলাপ থেকে কয়েকটা পাপড়ি ছাড়িয়ে নিয়ে পাপড়ি গুলোকে গোলাপ জলে ভিজিয়ে রাখুন।

তারপর সেই গোলাপের পাপড়ি ভেজানো গোলাপ জল মুখ ধোয়ার পর আপনার মুখমন্ডলে ব্যবহার করুন। এতে আপনার ত্বকের পুরোনো কোশিকা গুলো রিপেয়ার হওয়ার সাথে আপনার মুখমণ্ডলে রক্তের প্রবাহকে বৃদ্ধি করবে।

তাতে আপনার মুখমন্ডল আরো বেশি কোমল ও সুন্দর হয়ে উঠবে, আপনি আপনার ত্বকের পুরোনো জেল্লা ফিরে পাবেন। তবে মাথায় খেয়াল রাখবেন মুখে লাগানোর জন্যে একটি ভালো কোম্পানির গোলাপ জল ব্যবহার করবেন।

২১. টুথপেস্ট দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায়

আপনারা অনেকে টুথপেস্ট দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করতে শুনেছেন। কিন্ত আমার মনে হয় তাতে করে শুধুমাত্র টুথপেস্ট দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় করা যায়না।

কারণ টুথপেস্ট হল রাসায়নিক উপাদান দিয়ে তৈরী একটি উপাদেয়, সুতরাং মুখের কালো দাগ দূর করার জন্যে টুথপেস্ট এর ব্যবহার না করাটাই ভাল। কারণ ভালোকরে লক্ষ করলে দেখতে পাওয়া যায়

এই ধরণের রাসায়নিক প্রোডাক্ট আমাদের ত্বকের ভালো করার তুলনায় খারাপটাই বেশি করে। তাই এই ধরণের রাসায়নিক উপাদান ব্যবহার করার ব্যাপারে অবশ্যই আমাদের সচেতন হওয়া উচিত।

তবে আপনার টুথপেস্ট দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার কথা চিন্তা করেন তাহলে আমরা বলব সরাসরি আপনার চেহারায় টুথপেস্ট না লাগিয়ে টুথপেস্টের সঙ্গে আরো বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদেয় গুলো মিশিয়ে টুথপেস্টকে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় হিসাবে কাজে লাগাতে পারেন। যেমন-

  • অ্যালোভেরা ও টুথপেস্টের মিশ্রণ তৈরী করে চেহেরায় লাগালে অনেক সময় মুখের কালো দাগ গুলো ফিকে পড়তে দেখা যায়।
  • টুথপেস্টের সঙ্গে মুলতানি মাটি এবং গোলাপ জলের মিশ্রনে রেডিম তৈরী করে চেহেরায় লাগালে মুখের কালো দাগ গুলো ফেকাসে হয়ে যায়।
  • টুথপেস্টের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে চেরার কালো দাগ দূর করার উপায় হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন।

২২. মধু দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায়

এবারে আমরা কথা বলব মধু দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় নিয়ে। মধু দিয়ে মুখের কালো দাগ দূর করার জন্যে আপনাকে মধু সহযোগে একটি ফেস প্যাক তৈরী করে নিতে হবে।

মধু দিয়ে ফেস প্যাকটি তৈরী করার জন্যে আপনাকে হাতের কাছে বেশ কয়েকটি উপকরণের দরকার হবে। যেমন- মধু, চিনি, কাঁচা হলুদ এবং লেবুর রস।

সবার প্রথমে আপনাকে একটি পরিষ্কার কাঁচের পেয়ালায় এক চা চামচ মধু নিতে হবে। তারপর সেই মধুর সাথে কাঁচা হলুদ বেঁটে নিয়ে তার সাথে লেবু মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরী করে নিতে হবে।

এইভাবে মধুর প্যাকটি তৈরী হয়ে যাওয়ার পর সেই মধুর পাকটিকে আপনারা চেহেরায় ভালো করে স্ক্র্যাবিং করে লাগাতে হবে। এইভাবে মিনিট ১৫ মত মধু সহযোগে তৈরী প্যাকটি মুখে লাগানোর পর পরিষ্কার জলে ধুয়ে ফেলুন।

মধু দিয়ে তৈরী এই বিশেষ ফেস প্যাকটি নিয়ম করে আপনি যদি দুই সপ্তাহ মত লাগান তাহলে খুব অল্পদিনেই আপনার ত্বকের পুরোনো হারানো জেল্লা ফিরে পাবেন এবং আপনার মুখের কালো দাগ গুলোও ধীরে ধীরে চেহারার সাথে মিলিয়ে যাবে।

পরিশিষ্ট

আজকালকার যুগে মেয়েদের মুখে কালো দাগ পড়া কমন একটি সমস্যা ঠিকই , তবে মুখে কালো দাগ থেকে প্রতিকার পাওয়ার উপায় যে জানা নেই এমন কিন্ত নয়।

মুখের কালো দাগ দূর করার বিভিন্ন উপায় আছে আমরা তার মধ্যে প্রাকৃতিকভাবে মেয়েদের মুখের কালো দাগ দূর করার কতগুলো উপায় বা টিপস আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম।

আশাকরি আপনারা এই সমস্ত টিপস গুলো ফলো করে খুব তাড়াতাড়ি মুখের কালো দাগের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। তবুও এই সমস্ত ঘরোয়া উপায় গুলো দিয়ে আপনার মুখের কালো দাগ যদি দূর না হয় তাহলে অবশ্যই একজন ভালো চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

5/5 - (3 votes)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here