অলিম্পিক গোল্ড মেডেলিস্ট নীরজ চোপড়ার জীবনী (Neeraj Chopra Biography Bangla)

স্বর্ণ পদক বিজয়ী নীরজ চোপড়া ভারতের বর্ষা নিক্ষেপকারী (Javelin throw) একজন জাতীয় স্তরের খেলোয়াড়। ইনি সম্প্রতি ২০২১ সালে টোকিও অলিম্পিকে ভারতের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেন।

আজকে আমরা ২০২১ অলিম্পিকে স্বর্ণপদক বিজয়ী নীরজ চোপড়ার জীবনী নিয়ে দু-চার কথা আপনাদের সম্মুখে তুলে ধরার চেষ্টা করব।

টোকিও অলিম্পিকে অবিস্বাসীনীয় বর্ষা নিক্ষেপণ এথেলেটিক নীরজ চোপড়াকে টোকিও অলিম্পিকের জ্যাভেলিন থ্রো প্রতিযোগিতার ফাইনালে জায়গা করে দেয়।

২০২১ সালের টোকিও অলিম্পিকের বর্ষা নিক্ষেপণ (Javelin throw) প্রতিযোগীতার ফাইনাল খেলায় সবথেকে বেশি ৮৭.৫৮ মিটার দীর্ঘ্য বর্ষা নিক্ষেপ করে,

নীরজ চোপড়া ভারতের হয়ে টোকিও থেকে স্বর্ণ পদক ভারতের মাটিতে ছিনিয়ে নিয়ে আসেন। নীরজ চোপড়ার  অভাবনীয় বর্ষা নিক্ষেপের কৌশলের জন্য নীরজ চোপড়াকে ভারতীয় সেনায় সামিল করা হয়।

আসুন আমরা ভারতের অলিম্পিকে স্বর্ণ পদক বিজয়ী নীরজ চোপড়ার জীবনী নিয়ে আর একটু ভালোভাবে জানার চেষ্টা করি।

Table of Contents

নীরজ চোপড়ার জীবনী ও পরিচয় নিয়ে দু-চার কথা (Neeraj Chopra Biography in Bengali)


আসুন আমরা অলিম্পিকে স্বর্ণ পদক জয়ী মহান খেলোয়াড় নীরজ চোপড়ার জীবনীতে (Neeraj Chopra wiki,Bio few point) সংক্ষিপ্ত জীবন পঞ্জিকা আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করি।

নাম নীরজ চোপড়া
জন্ম তারিখ ২৪ সে ডিসেম্বর,১৯৯৭
জন্মস্থান হরিয়ানা রাজ্যের,পানিপথ
বাবার নাম সতীশ কুমার
মায়ের নাম সরোজ দেবী
শিক্ষাগত যোগ্যতা স্নাতক
পেশা এথেলেটিক/জাতীয় পর্যায়ের Javelin thrower (খেলোয়াড়)
ভারতীয় সেনায় পদভার সুবেদার হাবিলদার
Javelin throw তে বিশ্ব রেঙ্কিং চতুর্থ নম্বর
প্রশিক্ষকের নাম (Coach Name) উবে হোন
ধর্ম হিন্দু
জাতীয়তা ভারতীয়

 

নীরজ চোপড়ার জন্ম পরিচয় (Neeraj Chopra Birth Day)


১৯৯৭ সালের ২৪ ডিসেম্বর নীরজ চোপড়া হরিয়ানার পানিপথ শহরে জন্ম গ্রহণ করেন। নীরজ চোপড়ার বাবার নাম সতীশ কুমার এবং নীরজ চোপড়ার মাতার নাম হল সরোজ দেবী।

নীরজ চোপড়ার বাবা সতীশ বাবু পানিপথ জেলা শহর থেকে দূরে খণ্ডরা গ্রামের একজন সাধারণ কৃষক। যিনি কৃষিকর্ম করে তার জীবিকা নির্বাহ করতেন।

নীরজের মা একজন গৃহকর্ত্রী হিসাবে পরিবারের দায়িত্ব সামলাতেন। নীরজ তার পরিবারের বড় ছেলে,নীরজরা মোট ০৫ ভাই বোন। নীরজ চোপড়ারা ০৩ ভাই ছাড়াও আরো ০২ জন বোন আছে।

আরো পড়ুন : সন্দীপ মহেশ্বরীর জীবনী। 

নীরজ চোপড়ার শিক্ষা (Neeraj Chopra Education)


ভারতের তরুণ এথেলেটিক নীরজ চোপড়ার শিক্ষাজীবন শুরু হয় হরিয়ানা রাজ্যের পানিপথ শহরে। সেখানেই তিনি তার স্কুল শিক্ষা শেষ করেন।

এরপরে নীরজ চোপড়া তার Higher Secondary education পুরো করার পর বিবিএ কলেজে ভর্তি হন এবং সেখান থেকেই তিনি স্নাতক ডিগ্রি কমপ্লিট করেন।

নীরজ চোপড়ার ভারতীয় সেনায় যোগদান (Neeraj Chopra As a Army Officer)


মাত্র ১৯ বছর বয়সে নীরজ চোপড়া ভারতীয় সেনায় স্পোর্টস কোটায় ভর্তি হয়ে যায়। শুরুর দিকে তাকে ভারতীয় সেনার রাজপুতনা রাইফেলসে সামিল করার হয়।

নীরজের কর্মদক্ষতা দেখে নীরজকে ভারতীয় সেনায় সুবেদার হাবিলদারের পদে আসীন করা হয় । কিন্তু নীরজের মুখ্য লখ্য ছিল স্পোর্টসে,

নীরজ চোপড়ার বর্ষা নিক্ষেপনে (Javelin throw) অভাবনীয় প্রতিভা দেখে ভারতীয় সেনা আধিকারিকরা বর্ষা নিক্ষেপনের জন্য নীরজের উত্তম প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে দেয়।

নীরজ চোপড়ার কোচ (Neeraj Chopra Coach)


ভারতের তরুণ বর্ষা নিক্ষেপক খেলোয়াড় নীরজ চোপড়ার কোচ /ব্যক্তিগত প্রশিক্ষক (Neeraj Chopra Coach) হলেন ‘উবে হোন’,যিনি ব্যক্তিগত ভাবে জার্মানির একজন উত্তম বর্ষা নিক্ষেপক খেলোয়াড় ছিলেন।

আজকে উবে হোন মহাশয়ের সু-প্রশিক্ষণেই নীরজ কুমার ভারতের হয়ে ২০২১ টোকিও অলিম্পিকে স্বর্ণ পদক জিতে নিয়ে এসে ভারতের নামকে গৌরাম্বিত করেছে।

নীরজ চোপড়ার জীবনীতে তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে দু-চার কথা (Neeraj Chopra Personal Life)


কোনো মানুষ যখন সফলতা অর্জন করে তখন তার ব্যক্তিগত জীবনে উঁকি,ঝুঁকি মারা মানুষের স্বভাবের মধ্যে পড়ে। আজকে ভারত তথা বিশ্বের দরবারে

নীরজ চোপড়া একজন সেলিব্রিটি,আর আমাদের মনে সেলেব্রিটি মানেই তার প্রেমিক বা প্রেমিকা থাকবে ? কিন্তু নীরজ চোপড়ার ক্ষেত্রেও এই প্রশ্নটা নিয়ে অনন্ত জিজ্ঞাসা ক্রমশ বাসা বাঁধছে আমাদের মনে ?

তবে এই প্রশ্নের জবাবে নীরজ চোপড়ার ভক্ত বা সমালোচকদের শুষ্ক হাতেই ফিরে যেতে হবে। কারণ তরুণ এথেলেটিক নীরজ চোপড়া বর্তমানে অবিবাহিত এবং তার প্রেমিকা নিয়ে এখন পর্যন্ত কোনো জলঘোলা হয়নি।

আরো পড়ুন : কপিল শর্মার জীবনী। 

নীরজ চোপড়া বর্ষা নিক্ষেপের ভিডিও (Neeraj Chopra Javelin throw video)


Javelin throw খেলোয়াড় হিসাবে নীরজ চোপড়ার জীবনী পরিচয়


ছোট নীরজ মাত্র ১১ বছর বয়স থেকে বর্ষা নিক্ষেপ করা শুরু করেন। ২০১৪ সালে নীরজ চোপড়া একটি অন্তঃরাষ্ট্রীয় কোম্পনী থেকে ৭০০০ টাকা দিয়ে একটি উন্নতমানের বর্ষা কেনেন।

২০১৬ সাল থেকে নীরজ তার কোচ উবে হোন এর তত্ত্বাবধানে খেলার ময়দানে কঠিন পরিশ্রম করা শুরু করেন। তার খেলার মাঠের অক্লান্ত পরিশ্রমই তার বিশ্বরেকর্ড করার জন্য সহায়ক হয়।

২০১৭ সালে তিনি ০১ লক্ষ টাকা ব্যয় করে আরো একটি ভালো ব্রান্ডের নতুন বর্ষা কেনেন। ২০১৭ সালে এশিয়ান গেমসে বর্ষা নিক্ষেপণ প্রতিযোগিতায় ৫০.২৩ মিটার দীর্ঘ্য বর্ষা ছুড়ে ফাইনাল ম্যাচে বিজয়ী হন।

২০২১ সালে ডায়মন্ড লীগের বর্ষা নিক্ষেপণ ম্যাচে অংশগ্রহণ করেছিলেন,সেখানে তিনি সপ্তম স্থান অধিকার করেন। নীরজ চোপড়ার অক্লান্ত পরিশ্রম তার জীবনে ধীরে ধীরে সফলতার স্বাদ এনে দেয়।

খেলোয়াড় হিসাবে নীরজের চোপড়ার করা কিছু গুরুত্বপূর্ণ রেকর্ড


একজন উত্তম মানের বর্ষা নিক্ষেপক খেলোয়াড় হিসাবে নীরজ চোপড়া তার জীবনে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ রেকর্ড নিজের নামে করে নিয়েছেন –

০১. ২০১২ সালে উত্তর প্রদেশের লখনৌ শহরে আয়োজিত ১৬তম ‘ন্যাশনাল জুনিয়র জ্যাভিলিয়ন থ্রো’ প্রতিযোগিতায় ৬৮.৪৬ মিটার বর্ষা নিক্ষেপ করে নীরজ প্রথমবার স্বর্ণ পদক জিতেন।

০২. ২০১৩ সালে ন্যাশনাল ইয়ুথ চ্যাম্পিয়ন প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে নীরজ  ‘IAAF বিশ্ব ইয়ুথ চ্যাম্পিয়ন শিপে’ জায়গা হাসিল করেন।

০৩. ২০১৫ সালের ‘ইন্টার ইউনিভার্সিটি চ্যাম্পিয়ন শিপ’ প্রতিযোগিতায় ৮১.০৪ মিটার বর্ষা নিক্ষেপ করে নীরজ তার age groupe সেরা বর্ষা নিক্ষেপকের খেতাব নিজের নামে করে নেন।

০৪. ২০১৬ সালে নীরজ চোপড়া ‘বিশ্ব জুনিয়র চ্যাম্পিয়ন শিপ’ প্রতিযোগিতায় ৮৬.৪৮ মিটার বর্ষা নিক্ষেপ করে স্বর্ণ পদক জিতে আনেন।

০৫. ২০১৬ সালে আরো একবার ‘দক্ষিণ এশিয়ান বর্ষা নিক্ষেপণ প্রতিযোগিতার’ প্রথম রাউন্ডেই ৮২.২৩ মিটার বর্ষা নিক্ষেপ করে স্বর্ণ পদক জিতে নেন।

০৬. ২০১৮ সালে ‘কমন ওয়েলথ গেমে’ বর্ষা নিক্ষেপণ প্রতিযোগিতায় ৮৬.৪৭ মিটার বর্ষা নিক্ষেপ করে স্বর্ণ পদক জিতে আনেন।

০৭. ২০১৮ সালে জকর্তা এশিয়ান গেমে ৮৮.০৬ মিটার বর্ষা নিক্ষেপ করে সেখান থেকেও তিনি ভারতের হয়ে স্বর্ণ পদক জেতেন।

০৮. আপনাদের জ্ঞাতার্থে জানিয়ে রাখি ভারতের বর্ষা নিক্ষেপক খেলোয়াড় হিসাবে নীরজ চোপড়াই প্রথমবার ভারতের হয়ে এশিয়ান গেমে স্বর্ণ পদক জিতে আনেন।

এছাড়াও এথেলটিক মিকা সিংহের (১৯৫৮) পরে নীরজ চোপড়া হলেন দ্বিতীয় ভারতীয় খেলোয়াড়,যিনি ভারতের হয়ে এশিয়ান গেম এবং কমন ওয়েলথ গেমে স্বর্ণ পদক হাসিল করেন।

নীরজ চোপড়া টোকিও অলিম্পিক ২০২০ (Neeraj Chopra Tokio Olimpic 2020)


২০২১ সালের ০৭ আগস্ট বিকেল ০৪:৩০ নাগাদ টোকিও অলিম্পিক ২০২০ এর বর্ষা নিক্ষেপণ প্রতিযোগীতার ফাইনাল ম্যাচের আয়োজন করা হয়।

এর আগে বর্ষা নিক্ষেপনের অলিম্পিকের কোয়ালিফাই ম্যাচে ৮৬.৬৫ মিটার দীর্ঘ্য বর্ষা নিক্ষেপ করে ভারতের হয়ে টোকিও অলিম্পিক ২০২০ বর্ষা নিক্ষেপনের ফাইনাল ম্যাচে নীরজ নিজের জায়গা পাকা করে নেয়।

নীরজ চোপড়ার জীবনী
নীরজ চোপড়ার জীবনী

নীরজ চোপড়া টোকিও অলিম্পিক ২০২০ বর্ষা নিক্ষেপণ প্রতিযোগীতায় অবিশ্বাসিনীয় বর্ষা নিক্ষেপণ করে জাপানের মাটিতে ভারতের হয়ে স্বর্ণ পদক জিতে ইতিহাস লিখে দেন।

বর্ষা নিক্ষেপণ প্রতিযোগিতার ০৬ রাউন্ডের মধ্যে প্রথম ০২ রাউন্ডেই ৮৭.৫৮ মিটার বর্ষা নিক্ষেপ করে টোকিও অলিম্পিক ২০২০ এর সেরা বর্ষা নিক্ষেপকের শিরোপা তিনি নিজের নামে করে নেন।

নীরজ চোপড়ার টোকিও অলিম্পিক ২০২১ সময়সূচী (Neeraj Chopra Tokio Olimpic 2021 timetable)


টোকিও অলিম্পিক ২০২১ সালে বর্ষা নিক্ষেপের জন্য ফাইনাল ম্যাচের আয়োজন করা হয় ০৭ অগাস্ট ২০২১ বিকেল ০৪:৩০ নাগাদ।

নীরজ চোপড়া গ্রূপ-এ এবং গ্রূপ-বি ম্যাচের নূন্যতম ৮৩.৫০ মিটার বর্ষা নিক্ষেপের কোয়ালিফাই ম্যাচে উত্তীর্ন হওয়া ১২ জন খেলোয়াড়ের মধ্যে নিজের জায়গা পাকা করে ন্যায়।

০৭ অগাস্ট ২০২১ সাল বিকেল ০৪:৩০ হওয়া বর্ষা নিক্ষেপের ফাইনাল ম্যাচে সবথেকে দীর্ঘ্য ৮৭.৫৮ মিটার বর্ষা নিক্ষেপ করে তিনি ভারতের হয়ে অলিম্পিকে গোল্ড মেডেল জিতে নেন।

আরো পড়ুন : নরেন্দ্র মোদির জীবনী। 

নীরজ চোপড়ার সেরা বর্ষা নিক্ষেপ (Neeraj Chopra Best Javeline Throw)


টোকিও অলিম্পিক ২০২১ এর, বর্ষা নিক্ষেপনের ফাইনাল ম্যাচে ৮৭.৫৮ মিটার বর্ষা নিক্ষেপ করে নীরজ চোপড়ার সেরা বর্ষা নিক্ষেপের মধ্যে অন্যতম।

নীরজ চোপড়ার গ্রপের,নীরজ চোপড়ার ১৪ তম প্রতিদ্বন্দ্বি ফিনল্যান্ডের লসি এটেলটালো তার আগের খেলায় উত্তম প্রদর্শনের জন্য কোয়ালিফাই টেস্ট না দিয়েই অলিম্পিকের ফাইনাল ম্যাচে জায়গা করে নিয়েছিলেন।

কিন্তু ভারতের নীরজ চোপড়া অলিম্পিক কোয়ালিফাই ম্যাচের প্রথম রাউন্ডে ৮৩.৫০ মিটার বর্ষা ছুড়ে  অলিম্পিকের ফাইনাল ম্যাচে জায়গা করে নেন।

বর্ষা নিক্ষেপণ প্রতিযোগিতায় নীরজ চোপড়ার বিশ্ব রাঙ্কিং ( Neeraj Chopra Javelin thorow world ranking)


বর্ষা নিক্ষেপণ প্রতিযোগিতার সমগ্র বিশ্বের বর্ষা নিক্ষেপণ খেলোয়াড়ের নিরিখে বিশ্ব রাঙ্কিং এ ভারতের নীরজ চোপড়ার রাঙ্ক হল সমগ্র বিশ্বের মধ্যে চতুর্থ তম ।

নীরজ চোপড়ার বাৎসরিক আয় (Neeraj Chopra Net worth)


নীরজ চোপড়ার বাৎসরিক আয় নিয়ে এখনো নিশ্চিতভাবে কিছু বলা যায় না। তবে কিছুদিন আগে নীরজ চোপড়াকে বিখ্যাত স্পোর্টস পানীয় নির্মাতা সংস্থা

গ্যাটোরেড তাকে তাদের কোম্পানির ব্র্যান্ড আম্বাসাডার হিসাবে নিযুক্ত করেছেন। তবুও আপনারা নীরজ চোপড়ার বাৎসরিক যায় মোটামোটি ০৫ মিলিয়ন ধরে রাখতে পারেন।

নীরজ চোপড়ার প্রাপ্ত পুরুস্কার সমূহ (Neeraj Chopra Award)


  • ২০১২ সালে নীরজ চোপড়া জাতীয় জুনিয়র Javelin thorow প্রতিযোগিতায় Gold medal জিতে নেন।
  • ২০১৩ সালে নীরজ চোপড়া জাতীয় যুব চ্যাম্পিয়ন শিপ প্রতিযোগিতায় রজত পদক জয় করেন।
  • ২০১৬ সালে এশিয়ার জুনিয়র চ্যাম্পিয়ন শিপে রজত পদক জিতেন।
  • ২০১৭ এশিয়ান এথেলেটিক চ্যাম্পিয়ন হন এবং সেখান থেকেও গোল্ড মেডেল জিতে আনেন।
  • ২০১৮ সালে নীরজ চোপড়াকে অর্জুন পুরুস্কার দিয়ে সম্মানিত করা হয়।

নীরজ চোপড়ার গড়া কিছু ঐতিহাসিক রেকর্ড (Neeraj Chopra Historical movement)


ভারতের বর্ষা নিক্ষেপকারী তারকা প্লেয়ার নীরজ চোপড়া বর্ষা নিক্ষেপ প্রতিযোগিতায় বেশ কিছু খেতাব নিজের নামে করে নিয়েছেন।

০১. ভারতে এথেলেটিকে আজ থেকে ১২১ বছর আগে স্বর্ণ পদক আসে। কিন্তু নীরজ চোপড়া টানা ১২১ বছর পর ভারতীয় এথেলেটিক হিসাবে স্বর্ণ পদক অলিম্পিক থেকে জিতে নিয়ে আসেন।

০২. আপনারা জেনে খুশি হবেন দীর্ঘ্য ১৩ বছর পরে ভারতের  হয়ে নীরজ চোপড়া আরো একবার অলিম্পিকে গোল্ড মেডেল জিতে নিয়ে আসেন।

০৩. ২০০৮ সালে তীরন্দাজিতে অভিনব বিন্দ্রার পর ব্যক্তিগত বিভাগে আরো একবার নীরজ চোপড়া ভারতের হয়ে অলিম্পিকে স্বর্ণ পদক জিতে আনলেন।

০৪. নীরজ চোপড়া হলেন ভারতের একমাত্র খেলোয়াড় যিনি বর্ষা নিক্ষেপণ প্রতিযোগিতায় প্রথমবার অলিম্পিকে স্বর্ণপদক জিতে নিয়ে আসলেন।

নীরজ চোপড়ার আগে কোনো ভারতীয় খেলোয়াড় বর্ষা নিক্ষেপণ প্রতিযোগিতায় ভারতের হয়ে গোল্ড মেডেল জিতে নিয়ে আসেননি।

আরো পড়ুন : দলাই লামার জীবনী। 

নীরজ চোপড়ার পাওয়া আরো অন্যান্য আর্থিক পুরুস্কার (Neeraj Chopra Cash reward)


নীরজ চোপড়ার টোকিও অলিম্পিকে স্বর্ণ পদক বিজয় শুধু নীরজ চোপড়ার বিজয় নয়। নীরজের টোকিও অলিম্পিকে পাওয়া গোল্ড মেডেল সমগ্র ভারতবর্ষের মানুষের কাছে একটা আলাদা উপলব্ধি।

নীরজের অলিম্পিকে স্বর্ণ পদক জয়ের পর নেতা থেকে শুরু করে বিভিন্ন উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা তাকে বিজয় অভ্যর্থনা জানিয়েছেন। বিভিন্ন রাজ্য থেকে তাকে বিশেষ বিশেষ পুরুস্কার দিয়ে সম্মানিত করা হয়েছে।

০১. নীরজ চোপড়ার নিজের রাজ্য হরিয়ানা থেকে হরিয়ানা সরকার নীরজকে ০৬ কোটি টাকা নগদ অর্থ এবং সঙ্গে সরকারি চাকরি দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন।

০২. টোকিও অলিম্পিক ২০২০ এ স্বর্ণ পদক জেতার জন্য এবং বিশ্বের বুকে ভারতের নাম গৌরাম্বিত করার জন্য পাঞ্জাব সরকারের পক্ষ থেকে নীরজকে নগদ ০২ কোটি টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন।

০৩. উত্তর প্রদেশের গোরখপুর নগর পালিকার তরফ থেকে নীরজকে ০১ লক্ষ টাকার নগদ আর্থিক রাশি প্রদান করার কথা ঘোষণা করা হয়।

০৪. ভারতের ইন্ডিগো এয়ার লাইনের পক্ষ থেকে এক বছরের জন্য নীরজকে নিশুল্ক বিমান যাত্রার কথা ঘোষণা করা হয়েছে।

০৫. ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের তরফ থেকে নীরজ চোপড়ার টোকিও অলিম্পিকে স্বর্ণ পদক জয়ের জন্য নগদ ০১ কোটি টাকার আর্থিক রাশি পুরুস্কার হিসাবে দোয়ার কথা ঘোষণা করেন।

FAQ


প্রশ্ন – নীরজ চোপড়া কে ?

উঃ- নীরজ চোপড়া হলেন একজন ভারতীয় বর্ষা নিক্ষেপকারী খেলোয়াড়। যিনি সম্প্রতি টোকিও অলিম্পিকে স্বর্ণ পদক জিতেছেন।

প্রশ্ন – নীরজ চোপড়ার বাৎসরিক আয় কত ?

উঃ – ০৫ মিলিয়ন ড্রলার।

প্রশ্ন – নীরজ চোপড়ার গার্লফ্রেন্ডের নাম কি ?

উঃ- নীরজ চোপড়ার আপাতত কোনো গার্লফ্রেন্ড নেই।

প্রশ্ন – ২০২১ সালে অলিম্পিকে নীরজ চোপড়ার সেরা বর্ষা নিক্ষেপ কত ?

উঃ- ৮৭.৫৮ মিটার।

প্রশ্ন- নীরজ চোপড়া মাতার নাম ?

উঃ- নীরজ চোপড়া মাতার নাম সরোজ দেবী।

প্রশ্ন- নীরজ চোপড়া কোচের নাম ?

উঃ- নীরজ চোপড়া কোচের নাম উবে হোন।

পরিশিষ্ট


ভারতের তরুণ বর্ষা নিক্ষেপক প্রতিযোগী নীরজ চোপড়া বর্ষা নিক্ষেপণ প্রতিযোগিতায় স্বর্ণ পদক জিতে নিয়ে এসে ভারত তথা দেশ বাসীর নাম উজ্জ্বল করেছে।

নীরজ চোপড়ার জীবনীর মাধ্যমে আমরা গোল্ড মেডেলিস্ট নীরজ চোপড়ার সামান্যতম অতি মৌখিক বিষয় গুলি আমাদের লেখনীতে যতটা সম্ভব তুলে ধরার চেষ্টা করলাম।

আপনাদের কাছ থেকে ভালোবাসা পেলে এরকম খেলোয়াড়ের জীবনী নিয়ে আরো ছোট ছোট আর্টিকেল আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করব।

এই আর্টিকেল গুলোও পড়ে দেখুন –