প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প স্বাস্থ্য বীমা যোজনা।

আজকে আমরা কথা বলব প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কি ? সেই বিষয়ে। আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের (Ayushman Bharat Schemes) দ্বারা সরকার দ্বারা সাধারণ মানুষদের কি কি সুবিধা দেওয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কিভাবে আবেদন করতে হবে ? প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কি,সবার জন্য উন্মুক্ত ? সবাই কি আয়ুষ্মান ভারত কার্ড কি করাতে পারবে ?

আয়ুষ্মান ভারত কারা পাবে,আয়ুষ্মান ভারত ওয়েবসাইট ভিজিট করে,কিভাবে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের সূচিতে নিজের নাম চেক করবেন,

প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কি উদ্দেশ্য নিয়ে সরকার এনেছে,আয়ুষ্মান কার্ড কিভাবে মানুষের সহায়ক হবে,চলুন তাহলে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প সমন্ধে বিস্তারিত জানা যাক।

আরো পড়ুন : ই শ্রম কার্ড কি এবং ই শ্রম কার্ড অনলাইন আবেদন করার নিয়ম। 

প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কি ? (Ayushman Bharat Schemes)


২০১৮ সালের ২১ শে মার্চ সংসদ অধিবেশনে নরেন্দ্র মোদি সরকার দারিদ্র দূরীকরণের লক্ষে বিশেষ করে যে সমস্ত মানুষ যারা দিন আনে দিন খায়,সে সমস্ত মানুষদের সেবার্থে

কেন্দ্রীয় সরকারের স্বাস্থা বীমা স্বরুপ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প নিয়ে আসার কথা ঘোষণা করেন। ২০১৫ সালে National Survey Sample Office এর

সার্ভে অনুযায়ী আমাদের দেশে দারিদ্রতার স্বীকার হওয়ার একটি অন্যতম কারণ হল ভারী রকমের মেডিকেল খরচ। সচারচর দেখতে পাওয়া যায় দারিদ্রসীমার নিচে বসবাসকারী পরিবার গুলির

কোনো সদস্য রোগ ব্যাধির স্বীকার হলে তাদের মেডিকেল খরচ বহন করার মত সামর্থ থাকেনা। এই সমস্ত গরিব পরিবারগুলিকে মেডিকেল খরচ বহন করার জন্য ঋণ জালে জর্জরিত হতে হয়।

তাই ঐ সমস্ত পরিবার গুলি সমাজে আয়ের নিরিখে আর উঠে আসতে পারেনা,এইভাবে প্রতি ১০ বছরে গড়ে ৬০ লক্ষ মানুষ দারিদ্রসীমার নিচে চলে যায়।

সমীক্ষায় দেখা গেছে বিগত ১০ বছরে মেডিকেল খরচ ৩০০ % পর্যন্ত বেড়ে গেছে,যা সাধারণ মানুষের আয়ের নিরিখে কোনো মতেই ব্যয় সাপেক্ষ নয়।

তাই নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করেছেন এই রকম দুঃস্থ পরিবার গুলির চিকিৎসা খরচ সরকার বহন করবে আয়ুস্মান ভারত যোজনার মধ্যে দিয়ে। সরকারের উদ্দেশ্য আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের লাভ

ভারতবর্ষের ১০ কোটি পরিবারের কাছে পৌঁছে দেওয়া। প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত যোজনার মাধ্যমে উপকৃত হবে ভারতের মোট জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেক মানুষ।

সরকার ভারতের সমস্ত রাজ্য এবং কেন্দ্র শাষিত রাজ্য গুলিকে প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের সুযোগ পৌঁছে দেওয়ার কথা বলেছেন।

আয়ুষ্মান ভারত যোজনার লাভ পৌঁছে দেওয়ার জন্য সরকার সমস্ত দেশের মধ্যে ১০৫ টি জেলাকে অগ্রাধিকার দেওয়ার জন্য চিহ্নিত করেছেন। এই সমস্ত জেলার সূচিতে দেশের ৫৫ টি জেলা

নকশাল প্রভাবিত,৩৫ টি জেলা অতি সংক্রামিত নকশাল প্রভাবিত এবং জম্মু ও কাশ্মীরের ১৫ টি আতঙ্কবাদী অধ্যুষিত জেলা রয়েছে।

আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের জন্য সরকারের প্রতি বছর খরচ হবে প্রায় ২০,০০০ কোটি টাকা। যার মোট খরচের ৬০ %কেন্দ্র সরকার এবং ৪০ % রাজ্য সরকার বহন করবে। এর মধ্যে ওড়িষা,পশ্চিমবঙ্গ এবং কেরালা রাজ্য

নিজেদেরকে আয়ুষ্মান ভারত যোজনার অন্তর্ভুক্ত করতে চায়নি,কারণ এই সমস্ত রাজ্যের প্রথম থেকে রাজ্যের নিজস্ব স্বাস্থা বীমা রয়েছে।

আরো পড়ুন : কোন ভ্যাকসিন সবথেকে ভালো। করোনা ভ্যাকসিনের অনলাইন রেজিস্ট্রেশন কিভাবে করবেন। 

আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কারা পাবে ( Who is eligible for Ayushman Bharat )


সরকার প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের সুবিধা নেওয়ার জন্য কিছু মানদন্ড নির্ধারণ করেছেন। তবে লোকে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পকে কেউ কেউ মোদি কেয়ার বলেও থাকে।

০১. আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের আওতায় আয়ুষ্মান ভারত কার্ড (Ayushman Bharat) বানানোর জন্য সর্বপ্রথম একজন ভারতীয় নাগরিক হতে হবে।

০২. ২০১১ সালের জনগণনা অনুসারে দারিদ্র সীমার নিচে বসবাসকারী পরিবার গুলিকে চিহ্নিত করে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের আওতায় আনা হবে।

০৩. যে সমস্ত পরিবারে,পরিবারের কোনো পুরুষ পরিবার প্রধান নেই সেই সমস্ত পরিবারগুলিকে আয়ুষ্মান ভারত যোজনায় নিয়ে আসা হবে।

০৪. পরিবারে শারীরিকভাবে অক্ষম কোনো বিকলাঙ্গ ব্যক্তি,যার চিকিৎসাভার বহন করার জন্য ঐ পরিবারের উপযুক্ত কোনো অভিভাবক নেই,সেই সমস্ত বিকলাঙ্গ মানুষগুলি আয়ুষ্মান ভারত কার্ডের সুবিধা পাবে।

০৫. যে সমস্ত পরিবারে ১৬ থেকে ৫৯ বছরের কোনো প্রাপ্ত বয়স্ক অভিভাবক পুরুষ সদস্য নেই,সেই সমস্ত পরিবার গুলি আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের সুবিধা পাবে।

০৬. আয়ুষ্মান ভারত কার্ডের মাধ্যমে প্রতি পরিবারকে বাৎসরিক ০৫ লক্ষ টাকার স্বাস্থ্য বীমার সুবিধা প্রধান করা হবে,একই পরিবারের ০১ এর থেকে অধিক সদস্য বীমার সুবিধা পাবে।

০৭. যে সমস্ত পরিবারের নিজস্ব কোনো পারিবারিক আবাস নেই,যারা অন্যের কাছে ভাড়ার ঘর নিয়ে থাকে সেই সমস্ত পরিবার গুলি আয়ুষ্মান ভারত কার্ডের (Ayushman Bharat) সুবিধা পাবে।

০৮. যারা ভিক্ষুক,যাদের আপন বলতে ঘর বাড়ী,আত্মীয় স্বজন কেউ নেই সেই সমস্ত রাস্তার ধারে রেল স্টেশনে দিন কাটানো ভিক্ষুকরা আয়ুষ্মান ভারত কার্ড বানাতে পারবে।

০৯. শহর এলাকাবাসীর জন্য সরকার সবমিলিয়ে ১০ বর্গের পেশাধারী মানুষদের আয়ুষ্মান ভারত যোজনার জন্য চিহ্নিত করা হয়েছে,যেমন-মোচি,ম্যাথর,ঝাড়ুদার ইত্যাদি পেশার মানুষ আয়ুষ্মান কার্ড বানাতে পারবে।

১০. এছাড়াও শহর এলাকার যে সমস্ত ব্যক্তির মাসিক আয় ১০,০০০ হাজারের নিচে,সেই সমস্ত পরিবার আয়ুষ্মান ভারত সরকারি স্বাস্থ্য বীমা কার্ড করতে পারে।

উপরের অনুচ্ছেদে আমরা জানলাম আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কারা পাবে এবার আমরা এই অনুচ্ছেদে জানব আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কারা পাবে না সেই বিষয়ে।

আরো পড়ুন : স্বাস্থ্য বীমা কাকে বলে স্বাস্থা বীমার প্রয়োজনীয়তা। 

আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কারা পাবে না


০১. দারিদ্র সীমার নিচে বসবাসকারী আর্থিকভাবে স্বচ্ছল নয় এমন পরিবারের জন্য গরিবিদূরীকরণের কথা মাথায় রেখে সরকার আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প এনেছে তাই সমাজের সমস্ত মানুষ এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেনা।

০২. ২০১১ জনগণনায় দারিদ্রসীমার নিচে বসবাসকারী তালিকার উপর ভিত্তি করে প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত  যোজনা (Ayushman Bharat Scheme) নিয়ে আসা হয়েছে

তাই ২০১১ সালের জনগণনায় যাদের নাম দারিদ্রসীমার নিচে বসবাসকারী তালিকার সূচিতে নথিভুক্ত করা হয়েছে সেই সমস্ত পরিবার আয়ুষ্মান ভারত কার্ড করার জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

০৩. ২০১১ জনগণনার সূচি অনেক পুরোনো হওয়ায় অপারেটর দ্বারা মানুষ ও পরিবারের ভুল তথ্য নথিভুক্ত  আছে তাই সরকার এর বাইরেও কিছু বাড়তি নিয়ম নিয়ে এসেছে,যেমন-

০৪. বর্তমানে যে সমস্ত পরিবারের কাছে ০৩ টি ও তার থেকে বেশি রুম সহ পাকা বাড়ী আছে সেই সমস্ত পরিবার গুলোর আয়ুষ্মান ভারত সূচিতে নাম থাকলেও তাদের আবেদন গ্রাহ্য হবেনা।

০৫. যেই সমস্ত পরিবারে ০২ চাকা সহ ০৩ চাকার বেশি নিজ বাহন যেমন- মোটর সাইকেল,ট্রাক্টর,অটো রিক্সা কিংবা কোনো রকমের প্রাইভেট গাড়ি আছে তারা এই বীমার জন্য যোগ্য নয়।

০৬. যে সমস্ত পরিবারে সরকারি বেতনভূগী কর্মচারী রয়েছে সেই সমস্ত পরিবার আয়ুষ্মান ভারত যোজনার লাভ পাবেনা।

০৭. কোনো পরিবারের কাছে ব্যক্তিগত মালিকানা হিসাবে ০৭ একর ও তার বেশি পরিমানের জমি এবং কৃষিকাজের জন্য পাম্পসেট থাকলে সেই পরিবার আয়ুষ্মান কার্ড পাবেনা।

০৮. ঘরে ফ্রীজ,ওয়াসিং মেশিন,এয়ার কন্ডিশন সহ বিভিন্ন আধুনিক উপরকরণ যাদের আছে তাদিকে আয়ুষ্মান যোজনার বাইরে রাখা হবে।

০৯. যে সমস্ত পরিবার ও সেই পরিবারের কোনো ব্যক্তি যদি সরকারকে আয়কর দিয়ে থাকে তাহলে সেই সমস্ত পরিবার আয়ুষ্মান ভারত কার্ড যাকে মোদি কেয়ার বলা হয়েও থাকে তারা এই সুবিধা পাবেনা।

১০. যে সমস্ত কৃষকের কাছে ৫০,০০০ টাকার অধিক পরিমানের কিষান ক্রেডিট কার্ড আছে তারা আয়ুষ্মান ভারত কার্ডের সুবিধা পাবে না।

আয়ুষ্মান ভারত কার্ড কিভাবে পাবেন 


আয়ুষ্মান ভারত প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্য বীমা কার্ড পাওয়ার জন্য সবার প্রথমে আয়ুষ্মান সূচিতে আপনার নাম চেক করার জন্য আয়ুষ্মান ভারত ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে।

২০১১ জনগণনা অনুসারে দারিদ্রসীমার নিচে বসবাসকারী পরিবার গুলির সদস্যদের নাম প্রথম থেকেই আয়ুষ্মান ভারত ওয়েব সাইটে ফিড করা হয়েছে।

তাই আপনি প্রথমেই https://mera.pmjay.gov.in/search/login অফিসিয়াল লিংকটিতে ক্লিক করে আপনার যদি ২০১১ সালে কোনো মোবাইল থেকে থাকে

প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কি
প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কি

তাহলে সেই মোবাইল নং দিয়ে ওটিপি যাচাই করে আয়ুষ্মান ভারত যোজনায় (Ayushman Bharat Scheme) আপনার নাম আছে কিনা চেক করে দেখতে পারেন। 

কিন্তু যদি আপনার মনে হয় আপনি আয়ুষ্মান ভারত কার্ড পাওয়ার জন্য যোগ্য কিন্তু আপনি আয়ুষ্মান গোল্ডেন কার্ড পাননি তাহলে আপনি আপনার নিজের নাম ayushmanbharat.gov.in

অফিসিয়াল আয়ুষ্মান ভারত ওয়েবসাইট লিংকটিতে ক্লিক করে আয়ুষ্মান ভারত যোজনার সূচিতে অনলাইন আয়ুষ্মান ভারত গোল্ডেন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন।

প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কি
প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কি

আয়ুষ্মান ভারতের অফিসিয়াল লিংকে ক্লিক করতেই,উপরের দেওয়া ছবির ন্যায় একটি নতুন উইন্ডো পপ আপ হবে,তার পর নিচে স্ক্রোল করুন দেখুন সেখানে নিচে বাঁ দিকে Terms & Condition এর

একটি ক্লিক বক্স থাকবে,সেখানে ঐ বক্সটাই রাইট ক্লিক করে Next অপশনে ক্লিক করুন। তারপর নতুন করে আবার একটি উইন্ড ওপেন হবে,সেখানে গিয়ে নিচের দিকে স্ক্রোল করে নেমে আসুন।

সেখানে আবার বাঁ দিকে Self Declaration বক্সটিতে ক্লিক করে Next অপশনটিতে ক্লিক করুন,তাহলে আবার আপনার সামনে নতুন একটি উইন্ডো খুলবে সেখানে একটি অনালাইন এপ্লিকেশন ফর্ম পাবেন।

ayushman bharat application 2
ayushman bharat application (

এবারে সেখানে আপনি আপনার যাবতীয় তথ্য সঠিক ভাবে দিয়ে নির্ভুল ভাবে আয়ুষ্মান ভারত কার্ডের জন্য আবেদন করুন।

অনলাইন আবেদন পত্রে আপনার স্ক্যান করা সই,আধার কার্ড এবং পাসপোর্ট সাইজের ফটো আপলোড করে আপনার এপ্লিকেশন সাবমিট করে দিন।

এরপর আপনি যদি আয়ুষ্মান ভারত কার্ডের জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হন তাহলে খুব তাড়াতাড়ি আপনার নাম আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের সূচিতে সামিল হয়ে যাবে।

তারপর আপনি আপনার আধার কার্ড কিংবা রেশনকার্ডের কপি সহ আপনার নিকটবর্তী CSC সেন্টারে গিয়ে আপনার আঙুলের বায়ো মেট্রিক ভেরিফিকেসন করিয়ে আয়ুষ্মান ভারত কার্ড ডাউনলোড করে নিন।

আরো পড়ুন : স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্প কি ? স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের জন্য কিভাবে আবেদন করবেন। 

আয়ুষ্মান ভারত যোজনায় আয়ুষ্মান কার্ড থাকলে হাসপাতালে কি কি সুবিধা পাবেন (Ayushman Bharat yojana Benefit)


আয়ুষ্মান ভারত যোজনা হল কেন্দ্রীয় সরকারের একটি অভিনব স্বাস্থ্য বীমা। আয়ুষ্মান ভারত কার্ড থাকলে আপনি যে সমস্ত সুবিধা গুলি হাসপাতাল থেকে বিনা মূল্যে পাবেন –

০১. আয়ুষ্মান ভারত কার্ড থাকলে ০৫,০০০০০ লক্ষ টাকার স্বাস্থ্য বীমা রাশির গোল্ডেন কার্ড পাওয়া যায়,এই বীমা কার্ড দিয়ে আপনি নিঃশুল্ক ভাবে চিকিৎসা খরচ বহন করতে পারেন।

০২. আয়ুষ্মান ভারত কার্ড থাকলে হাসপাতালে বিনা পয়সায় রুগীর বেড ভাড়া,রেজিস্ট্রেশন খরচ,বিভিন্ন ধরণের প্যাথলজিক্যাল টেস্ট,ডাক্তারের কনসাল্ট ফিস ইত্যাদির নিশুল্ক পরিষেবা দেওয়া হয়ে থাকে।

০৩. এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্য সুরক্ষা যোজনায়,রুগীর যাবতীয় ঔষধ,রুগীর খাবার,হাসপাতালে যাওয়া ও আসার জন্য এম্বুলেসের ভাড়া দেওয়া হয়ে থাকে।

০৪. প্রধামনন্ত্রী স্বাস্থ্য বীমা যোজনা,আয়ুষ্মান ভারত কার্ডের সুবিধা সমস্ত সরকারি হাসপাতাল ছাড়াও আয়ুষ্মান ভারত কার্ডের প্যানেলভুক্ত বেসরকারি হাসপাতাল গুলোতেও নিঃশুল্ক চিকিৎসা পাবেন।

০৫. আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প ক) Primary Illeness,খ) Secondary Illness এবং গ) Tertiary Illness ০৩ ধরণের রুগীকে সমান ভাবে কেয়ার করা হবে।

ক ) Primary Illness / প্রাথমিক চিকিৎসা যেমন সামান্যতম জ্বর, ব্যাথা,চোট ইত্যাদির মত ছোট খাটো সাধারণ প্রাথমিক চিকিৎসা নিঃখরচায় সরকারি প্রাথমি চিকিৎসা কেন্দ্রে পেয়ে যাবেন।

খ ) Secondary Illness/ সংবেদনশীল অসুখ,যেমন-ডায়ারিয়া,ম্যালেরিয়া ছাড়াও মাঝারি ধরণের সার্জারী যেমন- এপেন্ডিক্স,হাড্রোসিল ইত্যাদি অপারেশন গুলো ব্লক স্বাস্থ্য কেন্দ্র

এবং জেলা হাসপাতালে গিয়ে নিঃশুল্ক করাতে পারেন। যদি সেখানে যথেষ্ট চিকিৎসা উপকরণ না থাকে তাহলে আপনি আয়ুষ্মান কার্ড প্যানেলভুক্ত বেসরকারি হাসপাতাল থেকেও বিনা পয়সায় চিকিৎসা করাতে পারেন।

গ) Tertiary Illness / অতিসংবেদনশীল রোগ গুলি যেমন- ক্যানসার,এডস ইত্যাদি দুরারোগ্য ব্যাধির চিকিৎসা আপনি আয়ুষ্মান কার্ড থেকে করাতে পারেন।

০৬. সাধারণ ভাবে কোনো প্রাইভেট বীমা কোম্পানি Pre-Exciting disease অথাৎ শরীরের মধ্যে পূর্ব বিদ্যমান  রোগ যেমন- ডায়াবেটিসের মত রোগ থাকলে সরাসরি কভার দেওয়া হয়না,

কিন্তু প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্য বীমা যোজনা,আয়ুস্মান ভারতের কার্ডে সেরকম কোনো বাঁধা ধরা নিয়ম নেই,শরীরে বিদ্যমান যতরকমের পূর্ব বিদ্যমান রোগ আছে সমস্ত কভার করা হবে।

০৭. আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প হল একটি প্রোটেবল পরিষেবা। আয়ুষ্মান ভারত কার্ড থাকলে একজন গুজরাটের ব্যক্তি ঝাড়খণ্ডের কোনো বেসরকারি হাসপাতালে অসুখ দেখাতে পারে,

আবার কোনো ঝাড়খণ্ডের লোক দিল্লীতে আয়ুষ্মান প্যানেলভুক্ত যেকোনো হাসপাতালে গিয়ে তার চিকিৎসা করাতে পারে।

০৮. আয়ুষ্মান ভারত কার্ডের সুবিধা নেওয়ার জন্য রুগীকে হাসপাতালে অন্তত ২৪ ঘন্টা এডমিট থাকতে হবে,তবেই আয়ুষ্মান ভারত যোজনার আওতায় নিঃশুল্ক স্বাস্থ্য পরিষেবা পাওয়া যাবে।

আপনার এলাকার আয়ুষ্মান ভারত হাসপাতলের তালিকা কিভাবে চেক করবেন


আপনার স্থানীয় এলাকায় প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া যায় এমন বেসরকারি হাসপাতেলর তালিকা দেখার জন্য আয়ুষ্মান ভারত ওয়েবসাইটের

অফিসিয়াল লিংক https://hospitals.pmjay.gov.in/ এ ক্লিক করুন। এই লিংকটিতে ক্লিক করলে নতুন একটি উইন্ড খুলবে সেখানে নিজের রাজ্য জেলা,ব্লক ইত্যাদি

আয়ুষ্মান ভারত কার্ড
আয়ুষ্মান ভারত কার্ড

দেওয়ার পর ক্যাপচা কোড ভরে সার্চ দিলেই আপনি খুব সহজেই আপনার এলাকার আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের তালিকা ভুক্ত হাসপাতাল গুলি খুঁজে পেয়ে যাবেন।

FAQ


প্রশ্নঃ প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প কি ?                                                                             উঃ প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প হল একটি নিঃশুল্ক স্বাস্থ্য পরিষেবা।

প্রশ্নঃ আয়ুষ্মান ভারতে কত টাকার স্বাস্থ্য বীমা পাওয়া যায় ?                                                           উঃ আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পে ০৫ লক্ষ টাকার স্বাস্থা বীমা পাওয়া যায়।

প্রশ্নঃ আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের লাভ একই পরিবারের কত জন ব্যক্তি পাবে ?                                       উঃ পরিবারের সদস্যপদ নিয়ে কোনো বাঁধা ধরা নিয়ম নেই,একই পরিবারের একাধিক সদস্যকে বীমা কভারেজ দেওয়া হবে। তবে তা শুধু পরিবার পিছু ০৫ লক্ষ টাকা করে।

প্রশ্নঃ আয়ুষ্মান ভারত কার্ডের মাধ্যামে চিকিৎসা পাওয়ার জন্য কোনো বয়স লিমিট রয়েছে কি ?                উঃ না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here